চট্টগ্রাম রবিবার, ২৪ অক্টোবর, ২০২১

৪ আগস্ট, ২০২১ | ১:১১ অপরাহ্ণ

নিজস্ব সংবাদদাতা, চন্দনাইশ

সামাজিক অনুষ্ঠানে ম্যাজিস্ট্রেট, না খেয়ে পালালো মেহমান!

উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় কঠোর লকডাউনের ২য় ধাপে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বরকল পাঠানদন্ডী সর্দার পাড়ায় সামাজিক অনুষ্ঠান পরিচালনাকালে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাহফুজা জেরিন উপস্থিত হন। তার উপস্থিতি টের পেয়ে মেহমানরা পালিয়ে যায় এবং পন্ড হয় সামাজিক অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানের আয়োজনকারী ৫’শ মেহমানের জন্য খাবারের আয়োজন করেন। এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে আয়োজনকারী সৌরভ সর্দারকে ৫ হাজার, জায়গা প্রদানকারী হারাধন সর্দারকে ৩ হাজার টাকা জরিমানা করেন। তাছাড়া উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় সরকারের বিধিনিষেধ অমান্য করে মাস্ক ব্যবহার না করা, অপ্রয়োজনে ঘর থেকে বের হওয়া, দোকান খোলা রাখা, সিএনজি ট্যাক্সি ও মোটরবাইক চলাচল করায় বিধি নিষেধ অমান্যকারী ৩ জনকে ৫শ’ টাকাসহ ৮ হাজার ৫’শ টাকা জরিমানা করেন। এদিকে, কেশুয়া রাস্তার মাথা এলাকায় অবৈধভাবে বালি উত্তোলনের সংবাদ পেয়ে সেখানে যাওয়ার পর বালি উত্তোলনকৃত স্থানে একটি ডাম্পার (চট্ট-মেট্টো-ড-১১-২৬৭৩) গাড়ির সামনের গ্লাস, চালকের পিছনের গ্লাস, ২টি লুকিং গ্লাস, হেড লাইট ভেঙ্গে দিয়ে গাড়ির চাবি নিয়ে আসেন এবং গাড়ির চাকার বাতাস ছেড়ে দেন। গাড়ির অংশ বিশেষ ভাঙার কারণে ৫০ হাজার টাকার অধিক ক্ষতিসাধন হয়েছে বলে জানিয়েছেন গাড়ির মালিক আনিছুর রহমান।
এ ব্যাপারে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাহফুজা জেরিন গাড়ির অংশ বিশেষ ভাঙার কথা স্বীকার করে বলেন, একটি অবৈধ বালু মহল বন্ধ করতে গিয়ে গাড়ির চালক পালিয়ে যাওয়ার সময় তার সহকারীরা অল্পের জন্য দুর্ঘটনা থেকে বেঁচে যায়। গাড়িটি বালিতে আটকিয়ে দিয়ে চালক পালিয়ে যাওয়ায় গাড়ির কিছু অংশ ভেঙে ক্ষতিসাধন করা হয়েছে বলে তিনি স্বীকার করেন। তাছাড়া অবৈধ বালি উত্তোলনকারীকে না পেয়ে ৩ জন শ্রমিককে আটক করে রেখেছেন অথচ তারা শ্রমিক হওয়ায় অবৈধ বালি উত্তোলনকারী তাদের নিতে আসছে না বলে জানান তিনি।

 

 

পূর্বকোণ/এসি

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 575 People

সম্পর্কিত পোস্ট