চট্টগ্রাম রবিবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৯

সর্বশেষ:

৮ অক্টোবর, ২০১৯ | ৩:৩০ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

মণ্ডপে মণ্ডপে উপচে পড়া ভিড়

আজ বিজয়া দশমী, প্রতিমা নিরঞ্জনের দিন

শুরু হয়ে গেছে বিদায়ের বাজনা। এবার যে মাকে বিদায় দিতে হবে। মা ফিরবে নিজ আলয় তার সংসার সামলাতে। আজ বিসর্জনের মাধ্যমে শ্বশুরালয়ে ফিরে যাবেন মা। তাই গতকাল সোমবার নবমীতে মণ্ডপে মণ্ডপে ভক্তদের ছিল উপচে পড়া ভিড়। মায়ের বিদায়ের কারণে ভক্তের মন আজ বিষাদময়। নবমী পেরিয়ে দশমীর সকালটা এমনি ভাবনা ভিড় করে ভক্তদের মনে। তারপরও ‘আসছে বছর আবার আসবেন মা’ এমন আশায় আরো একটি বছরের প্রতীক্ষায় থাকবেন ভক্তরা। আজ বিজয়া দশমী সম্পন্ন হবে বিসর্জন ও বিজয়া দশমী কৃত্যের মাধ্যমে। বিজয়া দশমীর একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হলো অপরাজিতা পূজা। অপরাজিতা পূজা দুর্গাপূজার একটি অঙ্গ। দুর্গার অপর নাম অপরাজিতা। বিজয়া দশমীর দিন বিসর্জনের পর পূজামণ্ডপের ঈশান কোণে অষ্টদল পদ্ম এঁকে অপরাজিতার লতা রেখে এই দেবীর পূজা করা হয়। চকবাজার এলাকার শ্রী শ্রী বিষ্ণু মন্দিরের পুরোহিত নিতাই চক্রবর্তী বলেন, শাস্ত্রে বলে দেবীর আগমন যদি একি বাহনে হয়ে, তবে সেই বছরটি অশুভ হয়। এই বছর মা এসেছেন ঘোড়ায় আর যাবেনও ঘোড়ায়। তাই শাস্ত্র মতে এটি অশুভ। অশুভ বলতে ‘রাজনৈতিক উত্থান পতন, সামাজিক বিশৃঙ্খলা, অরাজকতা, দুর্ঘটনা, অপমৃত্যুর শঙ্কা, অতি বন্যা, খরা, শস্য নষ্ট হওয়ার মত অশুভ কাজ হয়ে থাকে। সকাল থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত ভক্তদের উপস্থিতি ছিল

মণ্ডপগুলোয়।মণ্ডপগুলোতে দীর্ঘ লাইন ধরে অপেক্ষা করে প্রতিমা দর্শন করেছেন ভক্তরা। আবার বিভিন্ন উপজেলা থেকে পূজো দেখতে আসেন অনেকেই। জেএম সেন হলে পূজা দেখতে সীতাকু- থেকে পরিবার নিয়ে আছেন প্রদীপ মিত্র। তিনি বলেন, এখানে আন্দরকিল্লায় ছোটবোনের বাসায় বেড়াতে এসেছি পূজা দেখতে। সারাদিন শহরের বড় বড় পূজা সবগুলো দেখছি। আর কালতো (আজ) মা চলে যাবেন তাই মায়ের জন্য মনটাও খারাপ।
বিজয়া দশমী ও প্রতিমা বিসর্জন: বাংলাদেশ পূজা উদ্যাপন পরিষদ মহানগরীর সাধারণ সম্পাদক শ্রীপ্রকাশ দাশ অসিত বলেন, মঙ্গলবার বিজয়া দশমীতে সকাল নয়টায় নগরীর প্রধান পূজা মণ্ডপ ঐতিহ্যবাহী জেএম সেন হলে পুষ্পাঞ্জলি অনুষ্ঠিত হবে। বেলা ১২টা থেকে ১টার মধ্যে পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সহযোগিতায় প্রতিমা বিসর্জন অনুষ্ঠিত হবে। এতে নগরীর সকল আঞ্চলিক পূজা কমিটিকে দুপুর ১২ থেকে সন্ধ্যা ৬টার মধ্যে প্রতিমা বিসর্জন সম্পন্ন করার জন্য এবং প্রতিমা নিয়ে যাওয়ার সময় ট্রাক, লরি অথবা অন্য কোন যানবাহন হতে রং, পটকা বাজি ইত্যাদি ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকতে হবে বলে জানিয়েছেন মহানগর পূজা পরিষদ কর্তৃপক্ষ। এছাড়া আজ (মঙ্গলবার) প্রতিমা বিসর্জন হবে পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতের পাশাপাশি ফিরিঙ্গিবাজার অভয়মিত্র ঘাট, দক্ষিণ কাট্টলী রাসমণি ঘাট, মোহরা, কালুরঘাট, পাথরঘাটা, আনোয়ারা পারকি বিচ, ফৌজদারহাট সমুদ্র সৈকতে।

The Post Viewed By: 87 People

সম্পর্কিত পোস্ট