চট্টগ্রাম শনিবার, ১৩ আগস্ট, ২০২২

সর্বশেষ:

২৮ মে, ২০২২ | ১২:০৬ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশের ঋণ শোধের দায় আছে

মা-বাবা দুজনই ডাক্তার। তারা চেয়েছিলেন ডাক্তার হবেন ছেলেও। তবে সেদিকে মন দেননি তিনি। স্টিভ জবস, বিল গেটসকে আদর্শ মেনে ভর্তি হন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে। সেখানে পড়ার সময়েই উদ্ভাবনের নেশায় ২০১৪ সালে গড়ে তোলেন প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান বন্ডস্টাইন টেকনোলজিস। তাক লাগিয়ে দেন- ২ বছরের মাথায় মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁস ঠেকাতে প্রযুক্তি উদ্ভাবন করে।
বিশ্ববিখ্যাত সাময়িকী ফোর্বসের করা সেরা তিনশ তরুণের তালিকায় স্থান পাওয়া বাংলাদেশি তরুণ জাফির শাফি চৌধুরীর উদ্ভাবক হিসেবে শুরুর গল্পটা এমনই। এশিয়ার চার হাজার সম্ভাবনাময় তরুণ থেকে ত্রিশ বছরের কমবয়সী শীর্ষ প্রভাবশালী তিনশ তরুণের এই তালিকা করেছে ফোর্বস। গত বৃহস্পতিবার ‘ফোর্বস ৩০ আন্ডার ৩০ এশিয়া ২০২২’ শিরোনামে তালিকাটি প্রকাশ করা হয় ফোর্বসের ওয়েবসাইটে।
শুধু প্রশ্ন ফাঁস ঠেকাতে প্রযুক্তি নয়- জিপিএস ভিত্তিক ট্র্যাকিং, রিমোট মনিটরিং সলিউশন, রিয়েল টাইম ট্র্যাকিং প্রযুক্তিও উদ্ভাবন করেছে জাফির ও তার বন্ধুদের প্রতিষ্ঠান বন্ডস্টাইন। কৃষি ও ইন্ডাস্ট্রিয়াল আইওটি, সেফটি সলিউশন, প্রোডাক্ট ডেভেলপমেন্ট ও ইন্টিগ্রেশনে কাজ করছে প্রতিষ্ঠানটি। বুয়েট থেকে পাস করা অনেকেই যখন দেশের বাইরে পাড়ি জমাচ্ছেন- তখন দেশে বসেই এসব কাজ করছেন জাফিররা।
এ প্রসঙ্গে জাফির শাফি চৌধুরী পূর্বকোণকে বলেন, দেশের জন্য কাজ করতে চেয়েছি ছোটবেলা থেকেই। সরকারি স্কুল, সরকারি কলেজ, সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার কারণে সবসময় মনে হয়েছে- দেশ আমাকে তৈরি করেছে। আমার উপর দেশের ঋণ শোধ করার দায় আছে। এজন্য দেশেই থাকবো বলে ঠিক করেছি। বিশ্বমঞ্চে দেশের হয়ে পতাকা ওড়ানো, দেশের অর্থনীতিতে অবদান রাখতে কাজ করছি।
তিনি বলেন, বাংলাদেশে এখনও মেধাবীদের জন্য যথেষ্ট সুযোগ তৈরি হয়নি। বিদেশ গিয়ে অনেকে উন্নত জীবনযাপন এবং মেধার সঠিক প্রয়োগ করতে পারছে। এ কারণে মেধা পাচার হয়ে যাচ্ছে। আমাদের দেশে সরকারি এবং বেসরকারিভাবে উদ্যোগ নিলে এই অবস্থার উন্নতি সম্ভব। আশার কথা- সরকার বেশকিছু উদ্যোগ নিয়েছে। এভাবে চললে বাংলাদেশ দ্রুত প্রযুক্তি খাতে গুরুত্বপূর্ণ স্টেকহোল্ডার হিসেবে আত্মপ্রকাশ করবে। 
প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান বন্ডস্টাইন টেকনোলজিসকে বিশ্বমঞ্চে আইওটি সেক্টরের ফ্রন্টরানার হিসেবে গড়ে তোলার কথা জানিয়ে জাফির শাফি চৌধুরী বলেন, আমাদের দেশে, সমাজে, সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে অনেক সমস্যা আছে- যা এই ধরনের প্রযুক্তি ও ৪আইআর প্রয়োগে সমাধান করা সম্ভব। দেশকে এগিয়ে নেয়া সম্ভব। সেগুলো বাস্তবায়ন করতে চাই। ফরচুন ৫০০ কোম্পানির একটি হিসেবে বন্ডস্টাইনকে দেখতে চাই।

পূর্বকোণ/এস 

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট