চট্টগ্রাম শনিবার, ১৬ নভেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ১২:৪৯ পূর্বাহ্ণ

অধ্যাপক শাহাজাহান কবির ভূঁইয়া

ইচ্ছেশক্তির অমর নায়ক মোহাম্মদ ইউসুফ চৌধুরী

দৈনিক পূর্বকোণের স্বপ্নদ্রষ্টা এবং চট্টগ্রাম উন্নয়ন আন্দোলনের পুরোধা ব্যক্তিত্ব আলহাজ মোহাম্মদ ইউসুফ চৌধুরী আমাদের জন্যে সফল ব্যক্তিত্বের এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত এবং আমাদের সবার জন্যে প্রেরণার উৎস। প্রবল ইচ্ছেশক্তির মাধ্যমেই তিনি সবার জন্যে সফল মানুষের দৃষ্টান্ত হতে পেরেছেন। তিনি সবসময় বলতেন, মানুষের ভেতর এক বিশাল শক্তি লুকিয়ে আছে তার নাম ইচ্ছাশক্তি। যে শক্তি খোলে দেয় অফুরন্ত সম্ভাবনার দ্বার। এই অফুরন্ত ইচ্ছাশক্তিকে যদি সত্যিকারার্থে জাগ্রত করা যায় তাহলে সাত সমুদ্র তেরো নদী পাড়ি দিয়ে হলেও বিজয় ছিনিয়ে আনা সম্ভব। অদম্য, অজেয় ইচ্ছাশক্তি যার রয়েছে বিজয়ী হওয়ার সম্ভাবনা তারই সবচেয়ে বেশি। সাফল্যের স্বর্ণশিখরে পৌঁছার জন্য প্রয়োজন ইচ্ছাশক্তিকে শক্তিশালী করা। নিজের ভেতর লুকিয়ে থাকা অদম্য ইচ্ছাশক্তিকে যদি জাগিয়ে তোলা যায় তাহলে যেকোনো সাফল্য অর্জন করা সম্ভব। তাঁর কথাগুলো শতভাগই সত্য। যারা তাঁর কথাগুলোর মর্মাত্ব বুঝে অনুসরণের চেষ্টা করেছেন, তারা সবাই সফল হয়েছেন। নতুন প্রজন্মেরও উচিত, তাঁর জীবনাদর্শ অনুসরণ করে সম্মানজনক ও কল্যাণপূর্ণ জীবনের ভিত্ রচনা করা।

একটি প্রসিদ্ধ প্রবাদ বাক্য আছে, ডযবৎব ঃযবৎব’ং ধ রিষষ, ঃযবৎব’ং ধ ধিু অর্থ- ইচ্ছে থাকলেই উপায় হয়। সেই আদিকাল থেকেই এ প্রবাদ বাক্যটা মানুষের মুখে মুখে চলে আসছে। চট্টলদরদী ইউসুফ চৌধুরীর জীবনে এর যথাযথ প্রয়োগ লক্ষ করি আমরা। ইচ্ছা করলেই মানুষ যে অসাধ্যকে সাধন করতে পারে। কঠিন অবস্থার মুখোমুখি হয়েও সাফল্যকে ছিনিয়ে আনতে পারে। ইচ্ছাশক্তিকে প্রবল করেই কাজে ঝাঁপিয়ে পড়লে ফলাফল বের করে নিয়ে আসা সম্ভব। আমাদের সামনে এর নজির স্থাপন করেছেন চট্টলবন্ধু ইউসুফ চৌধুরী। ইচ্ছাশক্তির বলেই প্রতিবন্ধকতার পাহাড় মাড়িয়ে তিনি সাফল্য ছিনিয়ে এনেছেন সবক্ষেত্রে। তিনি প্রবল ইচ্ছেশক্তি দিয়ে নিজের জীবনে যেমন সফল হয়েছেন, তেমনি দেশ ও সমাজের কল্যাণেও নিজেকে উৎসর্গ করেছিলেন। আমাদের সবার উচিত এই মহান মানুষটির জীবনকে আদর্শ হিসেবে গ্রহণ করে নিজেদের জীবনকেও সফলতার বন্দরে নিয়ে যাওয়া।

The Post Viewed By: 129 People

সম্পর্কিত পোস্ট