চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ১৮ জুলাই, ২০২৪

সর্বশেষ:

চন্দনাইশে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত মৎস্য খামারিরা

বন্যায় ভেসে গেছে ২৫৪৭টি পুকুরের ১০ কোটি টাকার মাছ

নিজস্ব সংবাদদাতা, চন্দনাইশ

১৯ আগস্ট, ২০২৩ | ৩:৪২ অপরাহ্ণ

চন্দনাইশে ভয়াবহ বন্যার পানি নেমে গেলেও রাস্তাঘাট, সবজিক্ষেত, আমনধানের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। সবচেয়ে বেশি ক্ষতির মুখে পড়েছে মৎস্য খামারিরা। এ বন্যায় ২টি পৌরসভা ও ৮টি ইউনিয়নের ২ হাজার ৫৪৭টি পুকুর সম্পূর্ণভাবে ডুবে যায়। ফলে বন্যার পানিতে এসব পুকুরের মাছ ভেসে যায়। যার আর্থিক ক্ষতির পরিমাণ প্রায় ১০ কোটি টাকা বলে চন্দনাইশ উপজেলা মৎস্য অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়। চন্দনাইশে বন্যায় খামারিরা জাল দিয়েও মাছ রক্ষা করতে পারেনি। মৎস্য অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, দোহাজারী পৌরসভায়

৪০০, হাশিমপুর ইউনিয়নে ১৬০, সাতবাড়িয়া ইউনিয়নে ১৫০, বৈলতলী ইউনিয়নে ৬৩০, বরমা ইউনিয়নে ৩৫০, বরকল ইউনিয়নে ৫০০, ধোপাছড়ি ইউনিয়নে ১৭৬, কাঞ্চনাবাদ ইউনিয়নে ৭৫, জোয়ারা ইউনিয়নে ৭৫, চন্দনাইশ পৌরসভায় ৩১টি পুকুর ডুবে যায়। এতে ক্ষতিগ্রস্ত হয় হাজারো মৎস্য খামারি। একেবারে নিঃস্ব হয়ে পড়েছে অনেকেই। হাশিমপুর ইউনিয়নের বড়পাড়া গ্রামের বখতিয়ার উদ্দীন জানিয়েছেন, বন্যার ঢলে পুকুর পাড়ে অস্থায়ীভাবে জাল দিয়েও মাছ রক্ষা করতে পারেননি। তার ৩টি পুকুর ডুবে অন্তত ১৫ লাখ টাকার মাছ ভেসে গেছে। ঋণ নিয়ে এসব পকুরে বিভিন্ন জাতের মাছ চাষ করেছেন। বন্যা তার সর্বনাশ করে গেছে। এখন তিনি কিভাবে ঘুরে দাঁড়াবেন? তা তার জানা নেই। চন্দনাইশ পৌরসভার টিটু দাশের ৮টি পুকুরের মাছ জাল দিয়েও রক্ষা করতে পারেনি। তার প্রায় ১০ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ঋণ নিয়ে এসব পুকুরে বিভিন্ন জাতের মাছ চাষ করেছেন। এখন কিভাবে তার ঋণ শোধ করবেন তাও জানেন না। সাতবাড়িয়া ইউনিয়নের জসিম উদ্দীন আহমদ জানান, স্মরণকালের ভয়াবহ বন্যায় উপজেলার বিভিন্ন স্থানে তার ১৩টি পুকুরের মধ্যে ১২টিই ডুবে যায়। এরমধ্যে ১টি পুকুর বন্যার পানিতে না ডুবলেও বন্যার পানি জমে থাকার অজুহাতে স্থানীয় লোকজন ওই পুকুরের পাড় কেটে দেয়। কেটে দেয়া ওই পুকুরে ছিল ১ লাখ ৫০ হাজার টাকার পাঙ্গাস মাছের পোনাসহ অন্যান্য মাছ। সবগুলোই ভেসে গেছে। ডুবে যাওয়া ১২টি পুকুরে তার ১ কোটি ৩০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানান তিনি। উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ হাসান আহসানুল কবির জানান, চন্দনাইশে ৪ হাজার ২৮৭টি পুকুর রয়েছে। তৎমধ্যে ভয়াবহ এ বন্যায় ডুবে যায় ২ হাজার ৫৪৭টি। ফলে ওই সব পুকুরে চাষকৃত বিভিন্ন প্রজাতির মাছ ভেসে যায়। যার আর্থিক ক্ষতির পরিমাণ প্রায় ১০ কোটি টাকা।

পূর্বকোণ/এএইচ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট