চট্টগ্রাম বুধবার, ২৪ জুলাই, ২০২৪

সর্বশেষ:

চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্যে ১৮৫১ কোটি টাকার প্রকল্প

একনেকে ১২ হাজার ৯৫১ কোটি টাকার ১৭টি প্রকল্প অনুমোদন

পূর্বকোণ ডেস্ক

৬ সেপ্টেম্বর, ২০২৩ | ১১:২৬ পূর্বাহ্ণ

চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (চমেবি) প্রায় ১ হাজার ৮৫১ কোটি ৫৯ লাখ টাকার প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)। গতকাল মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপারসন শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত একনেক সভায় এ অনুমোদন দেওয়া হয়। সভায় ১৭টি প্রকল্প বাস্তবায়নে ১২ হাজার ৯৫১ কোটি টাকা অনুমোদন হয়।

 

অনুমোদিত এই প্রকল্পের মধ্যে ১৫ তলা হাসপাতাল ভবন ১টি, প্রশাসনিক ভবন ১টি, একাডেমিক ভবন এবং ডিনস অফিস ১টি, কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি, ক্যাফটেরিয়া, টিএসসি, প্রার্থনা কক্ষ, কনভেনশন হল এবং টিচার্স ক্লাব/লাউঞ্জ ১টি, বিআইটিআইডি হাসপাতাল ভবনের ৫ তলা হতে ১০ তলা ঊর্ধ্বমুখী ৬টি ফ্লোর সম্প্রসারণ ১টি। এছাড়াও দ্বিতল ভিসি বাংলো ১টি, ১৫ তলা প্রোভিসি, ট্রেজারার, ডক্টরস এবং অফিসার্স কোয়ার্টার ১টি, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পুরুষ হোস্টেল ও মহিলা হোস্টেল, আইএইচটি শিক্ষার্থী ছাত্র ও ছাত্রীদের জন্য পৃথক হোস্টেল ও নার্সেস ডরমিটরি যার সবকটি ১৫ তলা ভবন। ১২০০ বেডের হাসপাতালসহ বিভিন্ন চিকিৎসকের পোস্টগ্রাজুয়েট কোর্স চালুর লক্ষ্যে ১০ ফ্যাকাল্টিসহ ৬৯টি চিকিৎসা বিভাগ থাকবে।

 

প্রকল্প অনুমোদন সম্পর্কে চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. ইসমাইল খান বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশের ভাষা নেই। বঙ্গবন্ধু কন্যার আন্তরিকতায় বৃহত্তর চট্টগ্রামবাসীর দীর্ঘদিনের লালিত স্বপ্ন আজ বাস্তবায়নের দিকে এগিয়ে গেল।

 

বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিকল্পনা ও উন্নয়ন এর উপ-পরিচালক ডা. বিদ্যুৎ বড়ুয়া বলেন, একনেক সভায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী প্রকল্পগুলো অনুমোদন দিয়েছেন। শীঘ্রই নির্মাণকাজের ভিত্তিপ্রস্তর তিনি উদ্বোধন করবেন। পরবর্তীতে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই আমরা এর কাজ শেষ করার সর্বোচ্চ চেষ্টা করব। আশা করছি খুব দ্রুতই এর সুফল চট্টগ্রামবাসী গ্রহণ করতে পারবে। একনেক সভা সভাশেষে পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান ও প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম জানান, ১৭টি প্রকল্প বাস্তবায়নে মোট ব্যয় হবে ১২ হাজার ৯৫১ কোটি টাকা। এরমধ্যে সরকারি তহবিল থেকে ১০ হাজার ২৬৭ কোটি ৫২ লাখ টাকা, বৈদেশিক ঋণ থেকে পাওয়া যাবে ২ হাজার ৬৭০ কোটি টাকা এবং সংস্থার নিজস্ব তহবিল থেকে পাওয়া যাবে ১৩ কোটি ৮৪ লাখ টাকা।

 

অনুমোদিত প্রকল্পসমূহ : নড়াইল-কালিয়া জেলা মহাসড়কের ২১তম কিলোমিটারে কালিয়া নামক স্থানে নবগঙ্গা নদীর ওপর কালিয়া সেতু নির্মাণ; বিআরটিসির জন্য সিএনজি একতলা এসি বাস সংগ্রহ; উত্তরা এলাকায় পয়ঃশোধনাগার নির্মাণের জন্য ভূমি অধিগ্রহণ প্রকল্প (প্রথম সংশোধিত); ধীরাশ্রম আইসিডি নির্মাণের লক্ষ্যে জমি অধিগ্রহণসহ পুবাইল-ধীরাশ্রম রেল লিংক নির্মাণ; গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিসৌধ কমপ্লেক্সে আগত দর্শনার্থীদের সুযোগ-সুবিধা সম্প্রসারণের লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় অবকাঠামো নির্মাণের জন্য জমি অধিগ্রহণ; সোনাগাজী ৫০ মেগাওয়াট (সংশোধিত ৭৫ মেগাওয়াট) সৌর বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্প (প্রথম সংশোধিত); চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (সিএমইউ) স্থাপন; চাঁদপুর মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল এবং নার্সিং কলেজ স্থাপন; বাংলাদেশ কলেজ অব ফিজিশিয়ানস এন্ড সার্জনসের আধুনিকায়ন ও সম্প্রসারণ (প্রথম সংশোধিত)। এছাড়া সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়সমূহের উন্নয়ন প্রকল্প (প্রস্তাবিত প্রথম সংশোধন); চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার জেলায় ভূ-উপরিস্থ পানির মাধ্যমে সেচ উন্নয়ন; বাংলাদেশের চর এলাকায় আধুনিক কৃষি প্রযুক্তি সম্প্রসারণ; গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়া-কোটালীপাড়া উপজেলার জলাবদ্ধতা নিরসনে সমন্বিত পানিসম্পদ ব্যবস্থাপনা বাস্তবায়ন; বহুমুখী দুর্যোগ আশ্রয়কেন্দ্র প্রকল্প (এমডিএসপি) (তৃতীয় সংশোধিত); কুষ্টিয়া জেলার খোকসা উপজেলাধীন গড়াই নদীর ওপর সেতু নির্মাণ প্রকল্প; গুচ্ছগ্রাম-দ্বিতীয় পর্যায় (ক্লাইমেট ভিকটিমস রিহ্যাবিলিটেশন প্রজেক্ট) (চতুর্থ সংশোধিত) এবং জলবায়ু পরিবর্তনজনিত জীবনযাত্রার মান উন্নয়নসংক্রান্ত পার্বত্য চট্টগ্রামের সেক্টর প্রজেক্ট।

 

পূর্বকোণ/আরডি

শেয়ার করুন