চট্টগ্রাম শুক্রবার, ১৯ জুলাই, ২০২৪

সর্বশেষ:

চক্ষু বিশেষজ্ঞের ভুয়া পরিচয়ে চিকিৎসা দিতেন তিনি

রাউজান সংবাদদাতা

১০ জুলাই, ২০২৪ | ১২:০৫ পূর্বাহ্ণ

দীর্ঘদিন ধরে চক্ষু চিকিৎসা দিয়ে আসছিলেন পুলক কান্তি দে। অনেকের কাছে তাকে সন্দেহ হলেও প্রমাণ না থাকায় কেউ বলতে পারছিলেন না। অবশেষে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে সেই পুলক স্বীকার করেন, এতদিন তিনি ভুয়া পরিচয় দিয়ে চিকিৎসা দিয়েছেন।

 

মঙ্গলবার (৯ জুলাই) সন্ধ্যা ৭টার দিকে চট্টগ্রামের রাউজান পৌরসভা সদরের জলিলনগর বাসস্ট্যান্ডের আবসার মার্কেটের ভিশন সেন্টারে অভিযান চালিয়ে ওই পুলককে এক লাখ টাকা জরিমানা করেছেন।

 

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন রাউজান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অংগ্যাজাই মারমা। তিনি জানান, দণ্ডপ্রাপ্ত পুলক কান্তি দে মূলত একজন ল্যাব সহকারী। কিন্তু সে নিজেকে চক্ষু চিকিৎসক দাবি করে দীর্ঘদিন ধরে রোগী দেখে অর্থ আদায় করে আসছিল।

 

তিনি আরও বলেন, ৭ জুলাই উপজেলা পরিষদের মাসিক সভায় লাকী চৌধুরী নামে এক ইউপি সদস্য অভিযোগ উত্থাপন করে বলেন, একজন ব্যক্তি চক্ষু চিকিৎসক পরিচয়ে জলিলনগরে চিকিৎসা দিচ্ছেন। কিন্তু সিলসহ পরিচয় দিচ্ছেন না। তাই তিনি প্রকৃত চিকিৎসক কিনা তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ করেন। সে প্রেক্ষিতে আমি উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ও রাউজান থানা পুলিশ নিয়ে এ অভিযান পরিচালনা করি। অভিযানে ভুয়া চিকিৎসকের সত্যতা পাই।

 

 

পূর্বকোণ/জাহেদ/জেইউ/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট