চট্টগ্রাম শুক্রবার, ১২ জুলাই, ২০২৪

সর্বশেষ:

সাতকানিয়ায় ১০ হাজার কেজি তামাক পাতাসহ গ্রেপ্তার ৩

সাতকানিয়া সংবাদদাতা

২৪ জুন, ২০২৪ | ৫:৪৭ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় ট্রাকচালককে অপহরণ করে মুক্তি আদায়ের চেষ্টা করলে তিন অপহরণকারীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এ সময় চালকসহ ট্রাকটি উদ্ধার করা হয়। পাশাপাশি অপহরণকারীদের সাথে থাকা ১০ হাজার ৬১ কেজি তামাক পাতা জব্দ করা হয়।

 

রবিবার (২৩ জুন) রাতে উপজেলার ছদাহা ইউনিয়ন এলাকা থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়।

 

উদ্ধার ট্রাকচালক হলেন, টাঙ্গাইলের বাশাইল থানার হাবলা ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের নাহালী এলাকার মো. আতুয়ারের ছেলে মো. ইমন (৩২)। তিনি এস এ টোব্যাকো কোম্পানিতে চাকরি করেন।

 

গ্রেপ্তাররা হল- কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার মানিকপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সুরাজপুর এলাকার শামসুল আলমের ছেলে মো. ফারুক (৩০), নুরুল কবির (২৫) ও মো. ওসমান প্রকাশ ছোটন (৩৫)। গ্রেপ্তার তিনজন আপন সহোদর বলে জানিয়েছে পুলিশ।

 

পুলিশ ও মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ২১ জুন কক্সবাজারের চকরিয়ার এস এ টোব্যাকো লিফ ডিপো থেকে ট্রাকে তামাক পাতা বোঝাই করে রংপুরের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হন চালক ইমন। পথিমধ্যে গ্রেপ্তাররা মাইক্রোবাস নিয়ে গতিরোধ করে ট্রাকটি থামান। এ সময় তারা ট্রাকে উঠে ভয়ভীতি দেখিয়ে চালককে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের সাতকানিয়া রাস্তার মাথার উপজেলা মডেল মসজিদের সামনে নিয়ে যান। একপর্যায়ে তামাক ফ্যাক্টরিতে ফোন দিয়ে অপহরণের বিষয়টি জানিয়ে পাঁচ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করেন। খবর পেয়ে ফ্যাক্টরির ম্যানেজার চকরিয়া, লোহাগাড়া ও সাতকানিয়াসহ বিভিন্ন এলাকায় খোঁজাখুঁজি করে সন্ধান পেতে ব্যর্থ হন। এ ঘটনায় এস এ টোব্যাকো কোম্পানির ফ্যাক্টরি ম্যানেজার মো. সাকিব ২৩ জুন বাদী হয়ে তিনজনের নাম উল্লেখ ছাড়াও ৭-৮ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করে সাতকানিয়া থানায় একটি অপহরণের মামলা করেন।

 

মামলার পর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোস্তাক আহমদের নেতৃত্বে সঙ্গীয় পুলিশ অভিযান চালিয়ে অপহৃত চালক, তিন অপহরণকারী ও ১০ হাজার ৬১ কেজি তামাক পাতাসহ ট্রাকটি উদ্ধার করে। এ সময় তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

 

সাতকানিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রিটন সরকার বলেন, চালক অপহরণের ঘটনায় পুলিশ অভিযান চালিয়ে তিনজনকে গ্রেপ্তার এবং অপহৃত ব্যক্তিকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। গ্রেপ্তারদের পাঁচদিনের রিমান্ডের আবেদন করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

 

 

পূর্বকোণ/মুন্না/জেইউ/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট