চট্টগ্রাম সোমবার, ১৫ জুলাই, ২০২৪

সর্বশেষ:

অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়েছিলেন নিখোঁজ লেপ-তোষক ব্যবসায়ী

বোয়ালখালী সংবাদদাতা

১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২৩ | ৭:২৬ অপরাহ্ণ

দোকানের জন্য মালামাল কিনতে গত বৃহস্পতিবার সকাল ৭টায় বাড়ি থেকে বের হয়েছিলেন চট্টগ্রামের বোয়ালখালী উপজেলার কানুনগোপাড়া গ্রামের লেপ-তোষক ব্যবসায়ী বিকাশ সেন (৪১)। এরপর থেকে তার সন্ধান পাওয়া যাচ্ছিল না। তার সাথে থাকা মোবাইল ফোনও ছিল বন্ধ। সারাদিন বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ খবর নিয়েও মেলেনি বিকাশের সন্ধান। উদ্বেগ-উৎকণ্ঠায় ছিলেন পরিবারের সদস্যরা। ওইদিন রাতে বোয়ালখালী থানায় নিখোঁজ ডায়েরি করেন তার স্ত্রী স্বপ্না সেন।

 

পরদিন শুক্রবার দুপুর ২টার দিকে বিকাশ সেনের ফোন পেয়ে পরিবারের সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে বাড়ি নিয়ে আসেন। বিকাশ সেন উপজেলার আমুচিয়া ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের সাধন সেনের ছেলে। কানুনগোপাড়া স্যার আশুতোষ সরকারি কলেজের সামনে ‘তপোবন বেডিং হাউজ’ নামের একটি দোকান রয়েছে।

 

বিকাশ সেন বলেন, বাড়ি থেকে বের হয়ে লোকাল ট্যাকশিতে কালুরঘাট ফেরিঘাটে পৌঁছি। তখন সকাল সাড়ে ৮টা। ফেরি দিয়ে নদী পার হওয়ার পর কালুরঘাট পশ্চিম পাড়ে একটি লাল রঙের মেট্রো সিএনজিচালিত অটোরিকশা চালক মার্কেট যাবে বলে যাত্রী ডাকছিলেন। গাড়িতে দুইজন যাত্রীও ছিল। অটোরিকশাটি কামাল বাজার পৌঁছার পর যাত্রীদের কেউ একজন আমার মুখে গামছা ছুঁড়ে দেয়। এরপর আর কিছু মনে নেই। হঠাৎ সম্বিত ফিরে পেয়ে দেখি একটি নির্জন ঝোপঝাড়ের মধ্যে পড়ে রয়েছি। পকেটে মালামাল কেনার জন্য রাখা ১০ হাজার ৪ শত টাকা ও মালামাল বাঁধার সুতোর বান্ডিল নেই। তবে মোবাইল সেটটি বন্ধ অবস্থায় আমার পাশে পড়ে ছিল। এরপর লোকালয়ে গিয়ে এক দোকানদারকে ঘটনা খুলে বললে তিনি ১০০ টাকা ধার দেন। তখনও এক ধরনের ঘোরের মধ্যে ছিলাম। সময়টা ছিল শুক্রবার দুপুর ১২টা। জায়গাটার নাম ঠিক জানি না। তবে ফেরার সময় রাউজান পথের হাট পার হয়ে এসেছি। এরপর কাপ্তাই রাস্তার মাথায় আসলে সবকিছু মনে পড়ে। সেখানে এসে আমার আত্মীয় স্বজনকে ফোনে খবর দিলে তারা আমাকে বাড়ি নিয়ে আসেন।

 

পূর্বকোণ/পূজন/জেইউ/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট