চট্টগ্রাম শুক্রবার, ১৯ জুলাই, ২০২৪

সর্বশেষ:

আলীকদম উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা, পাল্টাপাল্টি অভিযোগ

বান্দরবান সংবাদদাতা

৩০ আগস্ট, ২০২৩ | ১১:৪৬ অপরাহ্ণ

হামলা ও মারামারির অভিযোগ এনে বান্দরবানের আলীকদম উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালামের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের পর থেকে তিনি গা ঢাকা দিয়েছেন বলে জানা গেছে। তবে বিষয়টি নিয়ে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করেছেন উভয় পক্ষ।

 

বুধবার (৩০ আগস্ট) আলীকদম থানায় মামলাটি দায়ের করেন ম্রো ন্যাশনাল পার্টির (এমএনপি) সাবেক প্রধান মেনরুং ম্রো।

 

মামলার এজাহারে উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মেনরুং ম্রো তার উপর হামলা, সীমান্তে চোরাচালান, গরু ও মাদকপাচারসহ নানাবিধ অভিযোগ করেছেন।

 

তবে উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম মেনরুং এর নেতৃত্বে কয়েকজন ম্রো যুবক আলীকদম পোয়ামুহুরী সড়কে ডাকাতি করছে এই অভিযোগ পেয়ে সেখানে গেলে তাদের সাথে কথা কাটাকাটি হয়। এ বিষয়টিকে তারা ষড়যন্ত্রে রূপ দিয়ে মামলা দায়ের করে তাকে হয়রানি করা হচ্ছে বলে পাল্টা অভিযোগ করেছেন।

 

আজ বুধবার সকালে আলীকদম প্রেস ক্লাবে উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন করেন মেনরুং। ওই সংবাদ সম্মেলনে তিনি উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ করেছেন থানায় দেয়া এজাহারেও একই বিষয় তিনি তুলে ধরেন। মামলা হওয়ার পর উপজেলা চেয়ারম্যান গা ঢাকা দিয়েছেন বলে জানা গেছে। আজ আলীকদমে পার্বত্যমন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপির বিভিন্ন প্রকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানেও ছিলেন না উপজেলা চেয়ারম্যান।

 

মেনরুং পূর্বকোণকে বলেন, সীমান্তে বিভিন্ন কাজের জন্য উপজেলা চেয়ারম্যান ম্রো সম্প্রদায়ের বিভিন্ন লোকজনদেরকে ব্যবহার করে আসছিল। এতে উপজেলা চেয়ারম্যানের কাছে ২১ লাখ টাকা পাওনা রয়েছে। গত ২৮ আগস্ট রাতে উপজেলা চেয়ারম্যানের নিজস্ব গাড়ি দিয়ে সীমান্ত থেকে সিগারেট পাচারের সময় পাওনা টাকা আদায়ের জন্য তা আটক করে। এ সময় উপজেলা চেয়ারম্যান তাদের উপর হামলা করে। এ হামলার প্রেক্ষিতে উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

 

এদিকে, উপজেলা চেয়ারম্যান পূর্বকোণকে বলেন, গত ২৮ আগস্ট রাতে মেনরুং এর নেতৃত্বে কয়েকজন ম্রো যুবক আলীকদম পোয়ামুহুরী সড়কে ডাকাতি করছে এই অভিযোগ পেয়ে সেখানে গেলে তাদের সাথে কথা কাটাকাটি হয়। এ বিষয়টিকে তারা ষড়যন্ত্রে রূপ দিয়ে মামলা দায়ের করে হয়রানি করছে।

 

আলীকদম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তৌহিদুর রহমান পূর্বকোণকে বলেন, মেনরুং ম্রোর ওপর হামলা ও মারামারির ঘটনা নিয়ে মামলাটি দায়ের করা হয়েছে। উপজেলা চেয়ারম্যানকে গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশ কাজ করে যাচ্ছে। তবে চেয়ারম্যান পলাতক রয়েছেন।

 

এদিকে, উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলার ঘটনাটি এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছে।

 

পূর্বকোণ/মিনার/জেইউ/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট