চট্টগ্রাম শুক্রবার, ২৬ জুলাই, ২০২৪

সর্বশেষ:

চবিতে ১২ দফা দাবিতে সোহরাওয়ার্দী হলে তালা ঝুলিয়ে আন্দোলন

চবি সংবাদদাতা

২৮ আগস্ট, ২০২৩ | ৪:১০ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) সোহরাওয়ার্দী হলে ১২ দফা দাবিতে তালা দিয়েছে শিক্ষার্থীরা। সোমবার (২৮ আগস্ট) দুপুর ১২টায় তারা হলের প্রশাসনিক কক্ষে তালা দিয়ে ও হলের সামনে অবস্থান নিয়ে আন্দোলন করেন। পরবর্তীতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল বডি ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে শিক্ষার্থীদের দাবি পূরণের আশ্বাস দিলে দুপুর ১টার দিকে আন্দোলনকারীরা তালা খুলে দেন।

 

তাদের দাবিগুলো হলো- হলের অনেক রুমে খাট, টেবিল, চেয়ার ও আলমারির সংকট। (দ্রুত ব্যবস্থা নিতে হবে), দীর্ঘদিন ধরে চলা হলের রাস্তার সংস্কার কর্মকাণ্ডের দ্রুত সমাপ্তি চাই, ডাইনিং এবং ক্যাফেটেরিয়ার খাবারের খুবই বাজে অবস্থা দ্রুত ব্যবস্থা নিয়ে এর মান বৃদ্ধি করতে হবে, হলে পর্যাপ্ত সুপীয় পানির সংকট( দ্রুত এই সংকট দূর করতে হবে), হলের ওয়াফাই ঠিকমতো চলে না, নিরবিচ্ছিন্ন ওয়াইফাই সংযোগের ব্যবস্থা করতে হবে, হলের ওয়াশরুমের সমস্যার দ্রুত সমাধান করতে হবে, সোহরাওয়ার্দী হলের মাঠের সংস্কার এবং দ্রুত খেলাধুলার সরঞ্জামের অপ্রতুলতা নিরসন করতে হবে, শিক্ষার্থীদের চলাচলের নিরাপত্তার জন্য হলের সামনের রাস্তায় স্পীড ব্রেকার চাই, রিডিং রুমে পর্যাপ্ত বই, চেয়ার, টেবিল ও নিরবচ্ছিন্ন আলো ও ফ্যানের ব্যাবস্থা করতে হবে, টিভির রুমের বেঞ্চ ও গেস্ট রুমের সোফার সংকট নিরসন করতে হবে, হলের পানির হাউজ ব্যবহারের উপযোগী করতে হবে এবং পুরাতন ভবনে শিক্ষার্থীদের জীবনের হুমকি রয়েছে। তাই নতুন এক্সটেনশন নির্মাণ করতে হবে।

 

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী মুননতাসীর সিয়াম বলেন, আমাদের প্রত্যেকটি দাবি যোক্তিক। হলের সামনের মোড়টা ৩ রাস্তার মোড় কিন্তু এখানে কোনো স্পিড ব্রেকার নাই। এতে করে শিক্ষার্থীদের জীবনের ঝুঁকি থাকে সবসময়। হল কর্তৃপক্ষ বারবার আমাদের মৌলিক দাবিগুলো পূরণে ব্যর্থ হচ্ছে। এছাড়া খাবার অত্যন্ত নিম্নমানের। ওয়াশরুম অপরিষ্কার এখানে যাওয়া যায় না। তাই আমাদের উল্লিখিত দাবিগুলো পূরণ করা এখন সময়ের দাবি।

 

হল প্রশাসন সাধারণ শিক্ষার্থীদের মৌলিক চাহিদা মেটাতে ব্যর্থ উল্লেখ করে আন্দোলনরত শিক্ষার্থী আল সাকিব বলেন, হলের শিক্ষার্থীদের মৌলিক চাহিদা পূরণের জন্য আজকের আন্দোলন। কারণ, হল প্রশাসন আমাদের মৌলিক অধিকার গুলো পূরণ করতে পারছে না। আমাদের বসবাসের সমস্যা, খাবারে সমস্যা, রিডিং রুমের সমস্যা। প্রশাসনের মাধ্যমে আমাদের এসকল সমস্যার দ্রুত যেন সমাধান হয় এটাই আমরা চাই।

 

চবি প্রক্টর ড. নূরুল আজিম সিকদার বলেন, আমরা সোহরাওয়ার্দী হলের শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে ১২টি দাবি পেয়েছি। পানির সমস্যা, রাস্তা সংস্কার, ডাইনিং এ খাবার সমস্যা, ওয়াশরুমের সমস্যা, রিডিং রুম, ইত্যাদি। আমি তাদেরকে আশ্বস্ত করতে চাই যতদ্রুত সম্ভব প্রশাসনের পক্ষ থেকে এই সমস্যা গুলোর সমাধানের ব্যবস্থা করা হবে। আমি তাদেরকে লিখিতভাবে সমস্যাগুলো জানাতে বলেছি। কোথায় লিখে জানাতে হবে সেই দিকনির্দেশনাও আমি তাদের দিয়েছি। আশা করি সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।

পূর্বকোণ/পিআর

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট