চট্টগ্রাম রবিবার, ২১ জুলাই, ২০২৪

সর্বশেষ:

বিয়ের দাবিতে প্রেমিকার অনশন টেকনাফে প্রেমিকের বাড়িতে

টেকনাফ সংবাদদাতা

২৬ আগস্ট, ২০২৩ | ৯:১৭ অপরাহ্ণ

কক্সবাজারের টেকনাফে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অনশন করছেন এক তরুণী।

 

গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে টেকনাফ সদর ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ড নতুন পল্লান পাড়া এলাকার প্রেমিক আনসারুল আহমদের বাড়িতে অবস্থান নিয়েছেন তরুণী। প্রেমিক আনসারুল আহমদ ওই এলাকার আব্দুল সালামের ছেলে। ভুক্তভোগী তরুণী টেকনাফ পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা।

 

ওই তরুণী সংবাদকর্মীদের বলেন, ‘দীর্ঘ ৬ বছর ধরে আমাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক। প্রেমের ফাঁদে ফেলে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দীর্ঘ ৬ বছরে বিভিন্ন হোটেলসহ নানা স্থানে আনসারুল আমার সাথে বহুবার শারীরিকভাবে মিলন করে। দীর্ঘ ৬ বছর ধরে প্রেমের নামে শারীরিকভাবে অনৈতিক সম্পর্ক করেছে। ঘটনার পর থেকে প্রেমিক আনসারুল পারিবারিক চাপের কারণে বাড়ি থেকে পালিয়ে গেছেন। দেশে ও সৌদি আরবে একাধিক স্থানে আমার বিয়ের কথা ঠিক হয়েছিল। কিন্ত আনসারুলের আশ্বাসে সে বিয়ে ভেঙ্গে দিয়েছি। বছর দেড়েক আগে তাদের বাড়িতে গিয়ে পরিবারকে বিষয়টি অবগত করি। বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে আমাকে বাড়ি থেকে পাঠিয়ে দেন। এখন সেই সম্পর্ক অস্বীকার করছে। তার পরিবারও এই সম্পর্ক মানতে নারাজ। অন্যত্র আনসারুলের বিয়ের কথা চলছে বলে শুনেছি। আনসারুল আমাকে চলে আসতে বলেছে। তাই বাধ্য হয়েই প্রেমিকের বাড়িতে গিয়ে অনশন শুরু করেছি। আমাকে বিয়ে না করলে আত্মহত্যা করা ছাড়া উপায় নেই’।

 

পলাতক থাকা প্রেমিক আনসারুল আহমদের সাথে বার বার মোবাইলে যোগাযোগ করা হলেও বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তাদের বাড়িতে গিয়েও কাউকে পাওয়া যায়নি এবং বাড়িটি তালা ঝুলানো দেখা গেছে।

 

টেকনাফ সদর ইউনিয়নের সংরক্ষিত আসনের মহিলা মেম্বার লাইলা বেগম বলেন, ‘দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্কের জের ধরে বিয়ের দাবিতে এক তরুণী আমাদের এলাকার আব্দুল সালামের বাড়িতে এসেছে। পরে বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুল ফারুকসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিরা বসে সমাধানের চেষ্টা করেছিলাম। সালিশে আব্দুল সালাম তরুণীকে তার ছেলের বউ হিসেবে মেনে নিবে না বলে জানিয়েছেন। তবে ২ লাখ টাকার বিনিময়ে মেয়েকে চলে যেতে বলেন। এতে মেয়ের পরিবার রাজি হননি’।

 

এ বিষয়ে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এরফানুল হক চৌধুরী জানান, বিষয়টি আমি শুনেছি। মেয়েটিকে উদ্ধার করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে পুলিশকে বলা হয়েছে।

 

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জোবাইর সৈয়দ জানান, বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

 

পূর্বকোণ/কাশেম/জেইউ/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট