চট্টগ্রাম শনিবার, ১৩ জুলাই, ২০২৪

উখিয়ায় অপহরণ-মানবপাচার চক্রের দুই মূলহোতা গ্রেপ্তার, অস্ত্র উদ্ধার

উখিয়া সংবাদদাতা

১০ আগস্ট, ২০২৩ | ৫:৩৬ অপরাহ্ণ

কক্সবাজারের উখিয়ায় পৃথক অভিযান চালিয়ে অপহরণ ও মানবপাচার চক্রের অন্যতম দুই মূলহোতাকে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১৫। বুধবার (৯ আগস্ট) দিবাগত রাত সাড়ে ১২টায় উখিয়ার মরিচ্যা ও পালংখালী এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করে।

 

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- টেকনাফ সদর ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের নতুন পল্লান পাড়ার মৃত সিরাজুল ইসলামের ছেলে আরিফুল ইসলাম প্রকাশ আরিফ (৪৬) ও পালংখালী ইউনিয়নের নাজির হোছনের ছেলে জিয়াবুল হক (৩৫)।

 

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন র‌্যাব-১৫ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (ল’ এন্ড মিডিয়া) মো. আবু সালাম চৌধুরী। তিনি জানান, গতকাল বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২ টায় জানতে পারি উখিয়ার দক্ষিণ মরিচ্যা এলাকায় এক ব্যক্তি অস্ত্র ও মাদক নিয়ে অবস্থান করছে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে ওই জায়গায় অভিযান যায় র‌্যাবের একটি দল। র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে দৌড়ে পালানোর সময় আরিফ নামে এক সন্ত্রাসীকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তার দেহ তল্লাশি করে ১টি দেশীয় তৈরি এলজি বন্দুক ও ২ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করা হয়।

 

গ্রেপ্তার আরিফ জিজ্ঞাসাবাদে জানায়, আরিফ টেকনাফের নতুন পল্লান পাড়া ও লেঙ্গুর বিল এলাকার অপহরণ ও মানবপাচার চক্রের অন্যতম মূলহোতা। আরিফ এবং তার অন্য দুই ভাই মুহিত কামাল ও কুলু মিলে দক্ষিণ মরিচ্যা এলাকায় সমস্ত অপহরণ ও মানবপাচার নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। সম্প্রতি তার ভাই মুহিত কামাল পাঁচজন সহযোগীসহ র‌্যাবের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছে। গ্রেপ্তার আরিফুল ইসলাম প্রকাশ আরিফের বিরুদ্ধে টেকনাফ থানায় মানবপাচার প্রতিরোধ ও দমন আইনে দুইটিসহ ৪টি মামলা রয়েছে।

 

অপরদিকে বুধবার সন্ধ্যায় উখিয়ার পালংখালী এলাকায় অপহরণ, মুক্তিপণ ও মানবপাচার মামলার এজাহারভুক্ত আসামি জিয়াবুল হককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তার জিয়াবুল উখিয়ায় অপহরণ ও মানবপাচারের একটি চক্রের অন্যতম মূলহোতা। রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের সাথে যোগসাজশে অপহরণ, মুক্তিপণ ও মানবপাচারের একটি সংঘবদ্ধ নেটওয়ার্ক পরিচালনা করে থাকে জিয়াবুল। তার বিরুদ্ধে

উল্লেখ্য, গ্রেপ্তার আসামির বিরুদ্ধে কক্সবাজার জেলার উখিয়া থানায় মানবপাচার আইনে একটি মামলা রয়েছে।

পূর্বকোণ/পিআর/এএইচ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট