চট্টগ্রাম রবিবার, ২১ জুলাই, ২০২৪

সর্বশেষ:

চট্টগ্রামে স্ত্রী হত্যা মামলায় স্বামীর যাবজ্জীবন

২৭ জুলাই, ২০২৩ | ২:১৪ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রামের মিরসরাই থানার মঘাদিয়ায় স্ত্রীকে হত্যার দায়ে প্রিয় লাল দাস (৪১) নামের এক ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড, ৫০ হাজার টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে আরও ৬ মাস বিনাশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত প্রিয় লাল দাস ওই এলাকার দাস পাড়ার মৃত মনোরঞ্জন দাসের ছেলে।

বৃহস্পতিবার (২৭ জুলাই) চট্টগ্রামের পঞ্চম অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মুহাম্মদ শরিফুর রহমানের আদালত এ রায় দেন।

চট্টগ্রাম জেলা পিপি অ্যাডভোকেট শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী জানান, স্ত্রী সুজাতা বালা দাসকে হত্যার মামলায় মোট ১৪ জন সাক্ষী ছিলেন। তবে আদালত ১২ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে সাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে স্বামী প্রিয় লাল দাসের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ড, ৫০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ৬ মাস বিনাশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন। মামলার শুরু থেকেই আসামি প্রিয় লাল দাস পলাতক থাকায় তার বিরুদ্ধে সাজা পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।

মামলার নথি থেকে জানা যায়, প্রিয় লাল দাসের সঙ্গে সুজাতা বালা দাসের পারিবারিকভাবে ২০১০ সালের মার্চ মাসে বিয়ে হয়। ওই বছরের ৮ ডিসেম্বর বিকেলে পারিবারিক কলহের জেরে আত্মহত্যা করেছে বলে সুজাতা বালা দাসের বাবা নিতাই চন্দ্র দাসকে খবর দেওয়া হয়। ঘটনাস্থল থেকে মিরসরাই থানা পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠিয়ে দেয়। এ ঘটনায় মিরসরাই থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়। ময়নাতদন্তের রিপোর্টে চিকিৎসক মতামত দেন- সুজাতা বালা দাসকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে।

২০১১ সালের ১১ এপ্রিল সুজাতা বালা দাসের বাবা নিতাই চন্দ্র দাস বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা করেন। সেখানে বলা হয়েছে, পারিবারিক কলহের জেরে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে উত্তেজিত হয়ে প্রিয় লাল দাস স্ত্রী সুজাতা বালা দাসকে গলায় হাত দিয়ে চেপে ধরে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। পরে গলায় গামছা দিয়ে প্যাঁচিয়ে রেখে আত্মহত্যা করেছে বলে প্রচার করে।

 

 

 

পূর্বকোণ/পিআর/এসি

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট