চট্টগ্রাম রবিবার, ২১ জুলাই, ২০২৪

সর্বশেষ:

গার্মেন্টস পণ্যের রপ্তানি চালানে মিলল সুগন্ধি চাল, মসলা

নিজস্ব প্রতিবেদক

৯ সেপ্টেম্বর, ২০২৩ | ১১:০২ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম বন্দর দিয়ে রপ্তানির পূর্বে পোশাক পণ্যের একটি চালানে মিলেছে ঘোষণার অতিরিক্ত পোশাক পণ্যসহ খাদ্য সামগ্রী। চট্টগ্রাম কাস্টমসের শুল্ক কর্মকর্তারা রপ্তানি চালান পরীক্ষা করতে গিয়ে ঘোষণা বহির্ভূত পণ্যর সন্ধান পান। গত বৃহস্পতিবার পতেঙ্গার এসএপিএল ডিপোতে ওই চালান আটক করেন কাস্টমস কর্মকর্তারা। পরে চালানটির ২২টি ব্যাগ শতভাগ কায়িক পরীক্ষা করেন শুল্ক কর্মকর্তারা।

কাস্টমস সূত্র জানায়, সীতাকুণ্ড ভাটিয়ারির মাদাম বিবির হাটের প্রতিষ্ঠান জাহান ট্রেডিং কর্পোরেশন পোশাক পণ্যের রপ্তানি চালানে ঘোষণায় অতিরিক্ত পোশাক পণ্য ও খাদ্য সামগ্রী রপ্তানির অপচেষ্টা করে। প্রতিষ্ঠানটির অনুকূলে রপ্তানি চালান জাহাজীকরণের দায়িত্বে থাকা শেখ মুজিব রোডের সিএন্ডএফ প্রতিষ্ঠান এম আর এক্সপ্রেস লিমিটেড বিল অব এক্সপোর্ট দাখিল করে গত বৃহস্পতিবার। ঘোষণা অনুযায়ী প্রতিষ্ঠানটি ২১শ পিস টি-শার্ট ও ১ হাজার ১০৩ পিস পেন্ট রপ্তানির কথা থাকলেও চালানে পাওয়া যায় ৩ হাজার ৮৯৩ পিস পোশাক পণ্য। অর্থাৎ রপ্তানি ঘোষণায় ৩ হাজার ২০৩ পিস পোশাক পণ্য থাকার কথা ছিল, কিন্তু বাস্তবে কায়িক পরিক্ষায় অতিরিক্ত ৬৯০ পিস পোশাক পণ্য পায় কাস্টমস কর্মকর্তারা।

এর পাশাপাশি রপ্তানির বিল অব এক্সপোর্টে কোন প্রকার ঘোষণা না থাকলেও রপ্তানি চালানে পাওয়া গেছে ১০ কেজি চাষী ব্রান্ডের সুগন্ধী চাল, বনফুলের ১ কেজি ৪শ গ্রাম সেমাই, ২৪০ গ্রাম রাধুনী গুঁড়া মসলা ও ৩শ গ্রাম পাঁচফোড়ন। চালানটি চট্টগ্রাম থেকে থাইল্যান্ডের পাক্কানাত মীম নামের একটি প্রতিষ্ঠান আমদানি করে।
এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সিএন্ডএফ এজেন্ট প্রতিষ্ঠান জানায়, জাহান ট্রেডিং কর্পোরেশনের সাথে সিএন্ডএফ এজেন্টটি দীর্ঘদিন কাজ করে যাচ্ছে। কখনো সমস্যা হয়নি। এবার তারা অতিরিক্ত পোশাক পণ্যের পাশাপাশি অল্প পরিমাণে ভোগ্যপণ্য কার্টনের ভেতর দিয়েছে। অথচ এ ব্যাপারে সিএন্ডএফকে কিছুই জানায়নি। রপ্তানিকারক তার পরিচিত কারও জন্য দেশি এসব পণ্য পাঠাতে চেয়েছিলেন। তিনি ভেবেছিলেন কাস্টমস এগুলো ধরবে না। কিন্তু কাস্টমস আগের চেয়ে কঠোর হয়ে গেছে এটা রপ্তানিকারকের ধারণা ছিল না।

চট্টগ্রাম কাস্টমসের উপ-কমিশনার ব্যারিস্টার বদরুজ্জামান মুন্সি বলেন, ওই রপ্তানি চালানের ২২ কার্টনের সবগুলোতেই বাড়তি পণ্য পাওয়া যায়নি। কিছু কিছু কার্টনে চাল, মসলাসহ বিভিন্ন পণ্য পাওয়া গেছে। তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

 

পূর্বকোণ/রাজীব/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট