চট্টগ্রাম শনিবার, ১৩ জুলাই, ২০২৪

ভেজাল জুস কারখানা : ছয় মালিকের বিরুদ্ধে মামলা, গ্রেপ্তার ২

অনলাইন ডেস্ক

৩ সেপ্টেম্বর, ২০২৩ | ৮:৪৭ অপরাহ্ণ

নগরীর বায়েজিদে এভারফ্রেশ এগ্রো এন্ড ডেইরিতে অভিযান চালিয়ে ২৫ হাজার বোতল নকল লিচি জুসসহ দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে নগর গোয়েন্দা পুলিশ। শনিবার (২ সেপ্টেম্বর) রাতে বায়েজিদ থানাধীন সামাদপুর এলাকার জাঙ্গাল পাড়ায় অভিযান চালিয়ে প্রতিষ্ঠানটির ম্যানেজার ও এক কর্মচারীকে গ্রেপ্তার করেছে। এই ঘটনায় প্রতিষ্ঠানটির ছয়জন মালিক পলাতক রয়েছেন। তাদের বিরুদ্ধে বায়েজিদ থানায় মামলা দায়ের প্রক্রিয়াধীন বলে পূর্বকোণ অনলাইনকে জানিয়েছেন মহানগর গোয়েন্দা (বন্দর- পশ্চিম) বিভাগের উপ পুলিশ কমিশনার আলী হোসেন।

 

গ্রেপ্তাররা হলেন :  প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার মো.শফিকুল ইসলাম (২৯) ও কর্মচারী মো.শফিকুর রহমান (২২)। পলাতক মালিকরা হলেন : সাতকানিয়ার বড়হাতিয়ার মোস্তাক আহমদের ছেলে মোহাম্মদ সাইদুজ্জামান প্রকাশ মাসুদ (৪৫), একই উপজেলার কেওচিয়া তেমুহনি এলাকার মোজাফ্ফর আলীর ছেলে মো. হেলাল উদ্দিন টিপু (৪৩), সাতকানিয়ার মৃত আবদুল আজিজের পুত্র মো. নজরুল ইসলাম (৪৪), ফটিকছড়ির আল ইউসুফের পুত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম (৪৩), সাতকানিয়ার বড়হাতিয়া এলাকার হুমায়ন কবির (৪৫) ও  মো. মাসুম প্রকাশ মাসুদ।

 

উপ পুলিশ কমিশনার আলী হোসেন জানান, কারখানাটিতে প্রায় তিন বছর যাবত পানি, চিনি এবং বিভিন্ন ধরনের ক্ষতিকর ক্যামিকেল ও রঙ দিয়ে নকল জুস তৈরি করছিল। প্রতিষ্ঠানটির ম্যানেজার এসব জুস তৈরির জন্য  কোনো ধরনের  সরকারি অনুমতির কাগজপত্র আমাদের দেখাতে পারেননি। 

 

জানতে চাইলে বিএসটিআই চট্টগ্রাম অফিসের সহকারি পরিচালক (সিএম) মোস্তাক আহমেদ বলেন, যে কোন জুস জাতীয় পণ্যের বিএসটিআইয়ের লাইন্সেস নেয়া বাধ্যতামূলক। অনুমোদহীন জুস মানব শরীরের জন্য ক্ষতিকর। 

 

পূর্বকোণ/রাজীব/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট