চট্টগ্রাম রবিবার, ২১ জুলাই, ২০২৪

সর্বশেষ:

বৈরি আবহাওয়ায় মৃত্যুর মিছিল

একদিনেই আটজনের অনাকাঙ্ক্ষিত মৃত্যু

মোহাম্মদ আলী 

২৮ আগস্ট, ২০২৩ | ১১:৪৪ পূর্বাহ্ণ

আগের রাত থেকেই অঝোর ধারায় ঝড়ছিল বৃষ্টি। ভোরের দিকে তার তীব্রতা আরো বাড়তে থাকে। এরই মধ্যে বৃষ্টির পানিতে একাকার নগরীর নিম্লাঞ্চল। বাসা-বাড়ি থেকে বের হওয়ার সাহসও করতে পারছে না অনেকে। এ অবস্থায়  রবিবার (গতকাল) নগরবাসীর সকালটা শুরু হয় মৃত্যুর সংবাদ দিয়ে। সকাল ৭টায় নগরীর ষোলশহর রেল স্টেশন সংলগ্ন এলাকায় পাহাড় ধসে মারা যায় বাবা-মেয়ে। নিহত চায়ের দোকানদার আবদুল আউয়াল (৩৫) ও তার সাত মাস বয়সের মেয়ে জান্নাতের মরদেহ উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। প্রতিদিন ভোরে মেয়েকে নিয়ে দোকানে চলে আসেন আবদুল আউয়াল। কিন্তু গতকাল প্রবল বৃষ্টির কারণে দোকান খোলেননি তিনি, ঘুমিয়েছিলেন মেয়েকে নিয়ে। আর সেই ঘুমই হয়ে উঠল তাদের জীবনের শেষ ঘুম।

 

মর্মান্তিক এ ঘটনায় শোকে বিষন্ন নগরবাসী, এরপর একে একে শুনতে থাকে আট জনের মৃত্যুর সংবাদ। এ শোক মিছিলে দুপুরের দিকে সামিল হন আরো তিনজন। সীতাকুণ্ডে পুলিশ ভ্যানে ট্রেনের ধাক্কায় নিহত হন তিন পুলিশ কনস্টেবল। নিহতরা হলেন- কনস্টেবল মিজান, ইস্কান্দার, হোসাইন। তারা জেলা পুলিশের অধীন সীতাকুণ্ড থানার পুলিশ কনস্টেবল পদে চাকরি করতেন। উপজেলার সলিমপুর ইউনিয়নের ফকিরহাট এলাকায় রেলক্রসিংয়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে। একই দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো তিনজন।

 

একইদিন নগরীর হালিশহরের রঙ্গীপাড়া এলাকায় ঘটে আরো এক দুর্ঘটনা।  নালায় পড়ে নিখোঁজ হয়েছে ইয়াছিন আরাফাত নামে দেড় বছরের এক শিশু।  খবর পেয়ে বিকেল সাড়ে পাঁচটার পর থেকে সেখানে উদ্ধার অভিযান চালাচ্ছিল ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। রাত সাড়ে ১০টা পর্যন্ত মেলেনি নিখোঁজ শিশুটির হদিস। ইয়াছিন আরাফাত, একই এলাকার সাদ্দাম হোসেনের ছেলে।

 

শুধু এ তিনটি ঘটনায় নয়, গতকাল একের পর এক দুঃসংবাদের মধ্যে দিন কাটিয়েছেন নগরবাসী। একদিকে বৈরি আবহাওয়া, অন্যদিকে দুর্ঘটনায় একের পর এক মৃত্যু সংবাদে নগরবাসীকে বিষন্নতায় ছেয়ে বসে। আগের রাতে কর্ণফুলী নদীতে জাহাজের সঙ্গে আটকে থাকা এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। শনিবার (২৬ আগস্ট) রাতে সদরঘাট লঞ্চঘাট এলাকার নদী থেকে অজ্ঞাত ৩০ বছর বয়সী এই যুবকের মরদেহটি উদ্ধার করে সদরঘাট নৌ থানার পুলিশ। কালো টি শার্ট ও জিন্স প্যান্ট পরিহিত ওই যুবকের মরদেহটি নদীতে নোঙ্গর করে রাখা একটি লাইটারেজ জাহাজের সঙ্গে আটকে ছিল। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে। একই রাতে নগরীর সদরঘাট থানা এলাকায় আত্মহনন করেন এক এইচএসসি পরীক্ষার্থী। প্রবেশপত্র হারিয়ে ফেলায় মা-বাবার বকুনির ভয়ে পোস্ট অফিস গলির সর্দার ভবনের নিজ বাসায় গলায় ওড়না পেঁচিয়ে তিনি আত্মহত্যা করেন। পরে রাত তিনটার দিকে সদরঘাট থানা পুলিশ গিয়ে তার লাশ উদ্ধার করে। নিহত রিমঝিম দাশগুপ্ত (১৮) নামের এই পরীক্ষার্থী রাজীব দাশগুপ্তের মেয়ে। তিনি নগরীর এনায়েত বাজার মহিলা কলেজের শিক্ষার্থী ছিলেন।

 

এমনিতে ডেঙ্গু আর প্রবল বর্ষণে গত কয়দিনে অনেকটা বিপর্যস্ত নগরবাসী। এর মধ্যে একের পর এক মৃত্যুর সংবাদে যখন নগরবাসী বিপর্যস্ত, ঠিক আগের দিন গভীর রাতে চন্দনাইশে ঘটে আরো একটি দুর্ঘটনা। দোহাজারী পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের ছালে আহমদ খলিফা পাড়া এলাকায় মৃত বশির আহমদের বাড়িতে গায়ে হলুদের অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু হয় এক যুবকের। নিহত যুবক মো. জাহেদ হোসেন রুবেল (২৪) সাতকানিয়া উপজেলার খাগরিয়া ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডস্থ লামার পাড়া এলাকার বাচা মিয়ার পুত্র।

 

পূর্বকোণ/আরডি

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট