চট্টগ্রাম শনিবার, ১৩ জুলাই, ২০২৪

ভারমুক্ত হলেন মাহতাব- মোতাহেরসহ দেশের সকল ভারপ্রাপ্তরা

নিজস্ব প্রতিবেদক

৬ আগস্ট, ২০২৩ | ১১:৪১ অপরাহ্ণ

আওয়ামী লীগের জেলা, উপজেলাসহ সব পর্যায়ের ভারপ্রাপ্তরা ভারমুক্ত হলেন। ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে  রবিবার তাঁর সরকারি বাসভবন গণভবনে দলের বিশেষ বর্ধিত সভায় সকল ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে ভারমুক্ত করা হয়। এতদিন ধরে মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগে এবং মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।

জানতে চাইলে বর্ধিত সভায় অংশ নেয়া চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আল মাহমুদ এমপি পূর্বকোণকে বলেন, উত্তর বঙ্গের কোন এক জেলার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বক্তব্য প্রদানকালে নেত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, তিনি আর ভারপ্রাপ্ত থাকতে চান না। ভারমুক্ত হতে চান। তার বক্তব্যের পর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা বর্ধিত সভার উদ্দেশে বলেন, আজ থেকে আর কেউ ভারপ্রাপ্ত থাকবে না। আপনারা কি বলেন ? সভা থেকে সমস্বরে হ্যাঁ সূচক প্রতিক্রিয়া পাওয়ার পর তিনি ঘোষণা করেন। আজ থেকে আর কেউ ভারপ্রাপ্ত থাকছে না। সবাই ভারমুক্ত হয়ে কাজ করবে।

চট্টগ্রাম থেকে সভায় বক্তব্য দেয়ার সুযোগ পান চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী। তিনি কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতা আবৃত্তি করেন। একইসাথে জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের অবদানের কথা স্মরণ করেন। আগামীর সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে শেখ হাসিনাকে আবারো ক্ষমতায় আনার জন্য সবাইকে জানপ্রাণ দিয়ে কাজ করার আহবান জানান তিনি।

ভারপ্রাপ্তদের ভারমুক্ত করার বিষয়টি নিশ্চিত করে দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোতাহেরুল ইসলাম বলেন, দেশে আজ থেকে আওয়ামী লীগে আর কেউ ভারপ্রাপ্ত থাকছেন না। তিনিসহ সকল ভারপ্রাপ্ত সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক পূর্ণাঙ্গ পদবী ব্যবহার করবেন।

অনুষ্ঠিত দলটির বিশেষ বর্ধিত সভায় আওয়ামী লীগের প্রায় ৫ হাজার নেতা-কর্মী ও নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি অংশ নেন। দলের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য, উপদেষ্টা পরিষদ, আওয়ামী লীগের জেলা, মহানগর, উপজেলা ও পৌরসভা ইউনিটের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক, সংসদ সদস্য, জেলা ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, সিটি কর্পোরেশন ও পৌরসভার মেয়র, সহযোগী সংগঠনের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকেরা সভায় উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিটি জাতীয় নির্বাচনের আগে দলের নেতাদের নির্দেশনা দিতে এ ধরনের সভা করে আওয়ামী লীগ। ২০১৮ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে ২০১৭ সালের ২৩ জুন আওয়ামী লীগ এমন সভা করেছিল।

 

পূর্বকোণ/আরআর/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট