চট্টগ্রাম রবিবার, ২১ জুলাই, ২০২৪

সর্বশেষ:

কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎ

কক্সবাজারের সাবেক ডিসি-বিচারকসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে দুদকের অভিযোগ!

কক্সবাজার সংবাদদাতা

২ জুলাই, ২০২৪ | ৮:০৩ অপরাহ্ণ

কক্সবাজার জেলার মহেশখালীর মাতারবাড়ি কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য অধিগ্রহণকৃত জমির ক্ষতিপূরণের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে কক্সবাজারের সাবেক জেলা প্রশাসক (ডিসি) রুহুল আমিনসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) অভিযোগপত্র জমা দিয়েছে।

 

অভিযোগপত্রে বলা হয়েছে, ২০১৪ সালে মাতারবাড়িতে কয়লাভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ প্রকল্পের আওতায় অধিগ্রহণ করা জমি, ঘরবাড়িসহ অবকাঠামোর বিপরীতে ক্ষতিপূরণ নির্ধারণ করা হয় ২৩৭ কোটি টাকা। এর মধ্যে ২৫টি অস্তিত্বহীন চিংড়ি ঘের দেখিয়ে ক্ষতিপূরণ নির্ধারণ করা হয় ৪৬ কোটি টাকা। এই টাকা থেকেই নানা কৌশলে ১৯ কোটি ৮২ লাখ টাকা উত্তোলন করে আত্মসাৎ করা হয়। ঘটনায় মাতারবাড়ির ব্যবসায়ী এ কে এম কায়সারুল ইসলাম চৌধুরী বাদী হয়ে মামলা করেন।

 

দীর্ঘ তদন্ত শেষে দুদক প্রায় ২০ কোটি টাকা আত্মসাতের প্রমাণ পায় এবং অভিযোগপত্র জমা দেয়।

 

অভিযোগপত্রে আসামি করা হয়েছে সাবেক ডিসি রুহুল আমিন, সাবেক জেলা ও দায়রা জজ সাদিকুল ইসলাম তালুকদার, জেলা ও দায়রা জজ আদালতের আইনজীবী মোস্তাক আহমেদ, জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের উপ সহকারী প্রশাসনিক কর্মকর্তা নাজির স্বপন কান্তি পাল এবং জেলা ও দায়রা জজ আদালতের স্টেনোগ্রাফার মো. জাফর আহম্মদকে। বর্তমানে সাবেক ডিসি রুহুল আমিন জামিনে মুক্ত রয়েছেন।

 

দুদকের কক্সবাজার সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক রিয়াজ উদ্দিন বলেন, দীর্ঘ তদন্তের পর প্রমাণ পেয়ে আমরা গত সোমবার (১ জুলাই) কক্সবাজার সিনিয়র স্পেশাল জজ মুন্সি আবদুল মজিদের আদালতে এ অভিযোগপত্র দাখিল করেছি। আসামিদের বিরুদ্ধে দ্রুত বিচারের জন্য আদালতে আবেদন করা হবে।

 

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালে কক্সবাজারের তৎকালীন জেলা প্রশাসক রুহুল আমিনসহ ২৮ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন মহেশখালীর বাসিন্দা এক ব্যক্তি। মহেশখালীর মাতারবাড়ী কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্রের জন্য অধিগ্রহণকৃত চিংড়ি জমির মালিকদের ক্ষতিপূরণের ২৩ কোটি টাকা প্রতারণা ও জালিয়াতির মাধ্যমে আত্মসাতের অভিযোগে মামলাটি করা হয়। মামলার পরপরই এক নম্বর আসামি জেলা প্রশাসকের নাম জালিয়াতির মাধ্যমে বাদ দিয়ে নথি দুর্নীতি দমন কমিশনের প্রধান কার্যালয়ে পাঠান সাবেক জেলা ও দায়রা জজ সাদিকুল ইসলাম। এ কারণে অভিযোগপত্রে সাদিকুলসহ অন্য চারজনকেও আসামি করা হয়েছে।

 

পূর্বকোণ/এরফান/জেইউ/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট