চট্টগ্রাম রবিবার, ২৬ মে, ২০২৪

সর্বশেষ:

আবার ট্রাফিক নিষেধাজ্ঞার মুখে বেকহাম

পূর্বকোণ ডেস্ক

১০ মে, ২০১৯ | ৯:২০ অপরাহ্ণ

যুক্তরাজ্যের জাতীয় ফুটবল দলের সাবেক অধিনায়ক ডেভিড বেকহাম ছয় মাস গাড়ি চালাতে পারবেন না । সম্প্রতি তার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন দেশটির আদালত । এই নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো ব্রিটিশ ট্র্যাফিক আইনে দোষী সাব্যস্ত হয়ে শাস্তির মুখে পড়লেন তারকা ফুটবলার ডেভিড বেকহাম।

তার অপরাধ ছিল, তিনি গাড়ি চালানো অবস্থায় মোবাইল ফোন ব্যবহার করছিলেন। যুক্তরাজ্যের এই তারকা খেলোয়াড় তার নিজের দোষ স্বীকার করেছেন বলে বিবিসি সূত্রে জানা গেছে।

ছয় মাসের নিষেধাজ্ঞা বাদেও বেকহামকে ৭৫০ পাউন্ড জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া বিচারকার্যে আদালতের খরচ বাবদ আরও ১৭৫ পাউন্ড দিতে বলা হয়েছে তাকে। বাংলাদেশি টাকায় মোট এক লাখ এক হাজার ৩৭৬ টাকা জরিমানা গুনতে হচ্ছে এই ফুটবলারকে।

২০১৮ সালের ২১ নভেম্বর লন্ডন শহরে নিজের গাড়ি চালানোর সময় বেকহাম ফোন ব্যবহার করছেন এমন ছবি বিভিন্ন মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি বলছে, গত বছর ২১ নভেম্বর ধীর গতিতে গাড়ি চালানোর সময় মোবাইল ফোনে কথা বলছিলেন বেকহাম। তার ভিত্তিতেই ব্রমলি ম্যাজিস্ট্রেটস কোর্ট শাস্তি ঘোষণা করে প্রাক্তন এ রিয়াল মাদ্রিদ তারকার। বেকহাম নিজে হাজির ছিলেন সুনানিতে। অবশ্য বেকহাম নিজে ঘটনাটি মনে করতে পারছেন না বলেন। তবে তার এই সাফাই অভিযোগ এড়ানোর পক্ষে যথেষ্ট ছিল না।

এর আগেও একবার গাড়ির গতিসীমা সংক্রান্ত অভিযোগ উঠেছিল বেকহামের বিরুদ্ধে।  ৪০ মাইল প্রতি ঘণ্টার গতিসীমার রাস্তায় ৫৯ মাইলে গাড়ি চালিয়ে অভিযুক্ত হয়েছিলেন এই প্রাক্তন ম্যান ইউ তারকা । সেবার জরিমানা দিতে অস্বীকার করেন তিনি নির্ধারিত ১৪ দিন পেরিয়ে যাওয়ার পর তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয় বলে ।

বিচারপতি ক্যাথরিন মুর বলেন, ‘এর আগে গতিসীমা ভেঙে গাড়ি চালানোর জন্য বেকহামের লাইসেন্সে পেনাল্টির ছয় পয়েন্ট যোগ হয়েছিল। এবার আরও ছয় পয়েন্ট যোগ হওয়ায় তা ১২ পয়েন্টে এসে দাঁড়ায়, যা বেকহামের লাইসেন্স বাতিল করার পক্ষে যথেষ্ট। সে কারণেই আগামী ছয় মাস নিজে গাড়ি চালাতে পারবেন না তিনি।’

গাড়ি চালানোর সময় মোবাইল ফোন ব্যবহারের জন্য ছয় মাসের নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। এর ফলে আগামী ছয় মাস গাড়ি চালাতে পারবেন না ইংল্যান্ডের এই প্রাক্তন তারকা ফুটবলার।

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট