চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই, ২০২৪

সর্বশেষ:

ফাইল ছবি

‘বেশি বাড়াবাড়ি করলে ছাড় দেওয়া হবে না’

অনলাইন ডেস্ক

২৮ আগস্ট, ২০২৩ | ১১:০৮ অপরাহ্ণ

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘বিএনপি নেতারা দল বেধে সিঙ্গাপুর গেছেন। আবার শুনি, জাতীয় পার্টিরও একজন রয়েছেন। ষড়যন্ত্রকারীরা প্রস্তুত হচ্ছে। আমরাও প্রস্তুত। বেশি বাড়াবাড়ি করলে ছাড় দেওয়া হবে না।’

 

সোমবার (২৮ আগস্ট) রাজধানীর রমনায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশ (আইইবি) চত্বরে আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপ-কমিটি আয়োজিত উন্নয়ন ও শান্তি সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

 

বিএনপির উদ্দেশে কাদের বলেন, রাজনৈতিক আলোচনা দেশেও করবেন, বিদেশে গিয়েও করবেন- এটা তাদের ব্যাপার। রাজনীতি করেন, তবে দয়া করে ষড়যন্ত্র করবেন না, সন্ত্রাস করবেন না। ২০১৩-১৪ সালের মতো আগুন দিয়ে মানুষ পোড়াবেন না। এই রাজনীতি থেকে বিরত থাকবেন। মানুষ পোড়ালে খবর আছে।

 

তিনি বলেন, ‘বিএনপি সাম্প্রদায়িকতা ও জঙ্গিবাদের বড় ঠিকানা এবং প্রধান পৃষ্ঠপোষক। তারা আবারো ক্ষমতায় আসলে গণতন্ত্র গিলে খাবে, এ দেশে রক্তের বন্যা বইয়ে দেবে। কোনো ভাল মানুষকে তারা রাখবে না। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী এবং মুক্তিযোদ্ধাদের অস্তিত্বকে তারা নিশ্চিহ্ন করে দেবে। বিএনপির হাতে ক্ষমতা গেলে, তারা বাংলাদেশকে পাকিস্তান বানাবে নিশ্চিত।’

 

তিনি আরও বলেন, ‘বিএনপির আন্দোলনে জনগণ আসে না বলে এবার তারা সন্ত্রাসের পথে যাচ্ছে। কানাডায় বিএনপির ৫ জন নেতা আশ্রয় চাইতে গিয়েছিল। সে দেশের আদালত বলে দিয়েছে- এরা সন্ত্রাসী। এদের দল একটা গণতান্ত্রিক সরকারকে উৎখাত করার জন্য দেশে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে। তাদের রাজনৈতিক আশ্রয় দেওয়া যাবে না।’

 

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘গত সাড়ে ১৪ বছরে বিএনপি কোনো আন্দোলন গড়ে তুলতে পারেনি। আন্দোলন-সংগ্রাম আর রক্ত ঝরিয়ে আওয়ামী লীগের গতি থামাতে পারবে না। বিএনপির আন্দোলন মুখ থুবড়ে পড়েছে। বিএনপির আন্দোলনে জনগণ নেই আছে কেবল নেতাকর্মী। জনগণ যে আন্দোলনে নেই, সেই আন্দোলন পৃথিবীর কোথাও সফল হয়নি। বাংলাদেশেও হবে না।’

 

তিনি বলেন, ‘তারেক রহমান আর রাজনীতি করবেন না বলে মুচলেকা দিয়ে লন্ডনে পালিয়ে গেছেন। লন্ডনের টেমস নদীর ওপার থেকে ডাক দিলে মনে হয় বাংলাদেশ পানিতে ভেসে যাবে। কিন্তু অনলাইনের ডাক দিয়ে আন্দোলন কখনো হবে না।’ কাদের বলেন, বিএনপি বলেছিল ডিসেম্বরের ১০ তারিখে খালেদা জিয়া দেশ পরিচালনা করবেন। ১১ তারিখে তারেক রহমান দেশে আসবেন। কোথায় গেলো সেসব কথা।

 

প্রকৌশলীদের দাবি-দাওয়ার বিষয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘নির্বাচনের মাত্র চার মাস আছে। প্রকৌশলীদের দাবি দাওয়ার বিষয়ে আমরা বুঝি। কিন্তু এখন দেশের গণতন্ত্রকে বাঁচাতে হবে, দেশকে বাঁচাতে হবে।’

 

পূর্বকোণ/জেইউ/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট