চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ১৩ জুন, ২০২৪

পেকুয়ায় ‘কিশোর গ্যাং লিডার’ বাহাদুর আটক

পেকুয়া সংবাদদাতা

১১ জুন, ২০২৪ | ১১:৩০ অপরাহ্ণ

কক্সবাজারের পেকুয়ায় পুলিশের হাতে আটক হয়েছে একাধিক মামলার আসামি কিশোর গ্যাং লিডার মীর্জা বাহাদুর (৩০)।

 

মঙ্গলবার (১১ জুন) রাত ৯টার দিকে পেকুয়া বাজার থেকে পুলিশ তাকে আটক করতে সক্ষম হয়েছে।

 

আটক বাহাদুর উপজেলার বারবাকিয়া ইউনিয়নের পশ্চিম জালিয়াকাটা এলাকার মোজাম্মেল হকের ছেলে।

 

এদিকে বহু অপকর্মের হোতা বাহাদুর আটক হওয়ার খবরে এলাকায় সাধারণ জনগণের মাঝে স্বস্তি ফিরে এসেছে। তার আটক হওয়ার খবরটি এলাকায় চাউর হলে মুহূর্তেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। নেটিজানরা ফেসবুকে তাকে নিয়ে নীতিবাচক মন্তব্য করতে দেখা গেছে।

 

জানা গেছে, মীর্জা বাহাদুর একজন চিহ্নিত সন্ত্রাসী একাধিক মামলার আসামি। এলাকায় তিনি কিশোর গ্যাং লিডার হিসেবে পরিচিত। এদিকে মীর্জা বাহাদুর তার নিজস্ব ফেসবুক আইডি থেকে গত কিছুদিন ধরে পেকুয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম ও তার পরিবারকে নিয়ে কুরুচিপূর্ণ মানহানিকর বিভিন্ন ধরনের স্ট্যাটাস দিয়ে আসছিল। যুবলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম আইনি সহায়তা চেয়ে মঙ্গলবার পেকুয়া থানায় একটি লিখিত এজাহার দায়ের করেন।

 

এ ব্যাপারে জাহাঙ্গীর আলম বলেন, মীর্জা বাহাদুর একজন চিহ্নিত সন্ত্রাসী ও অস্ত্রধারী। কয়েকদিন ধরে সে আমি ও আমার পরিবারের সদস্যদের নিয়ে সামাজিক যোগযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ধারাবাহিকভাবে মানহানিকর স্ট্যাটাস দিয়ে আসছিল। তাকে অনেকবার সতর্ক করা হলেও সে কর্ণপাত করেনি। বাধ্য হয়ে থানায় এজাহার দায়ের করি।

 

এছাড়া আটক মীর্জা বাহাদুরের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজিরও অভিযোগ রয়েছে। তার বিরুদ্ধে সিএনজিচালিত অটোরিকশা শ্রমিক সংগঠনের কাছ থেকে ১০ লাখ টাকা চাঁদাবাজির অভিযোগ রয়েছে। এ বিষয়ে সংগঠনের সভাপতি মো. রফিক বাদি হয়ে গত ১০ জুন চকরিয়া সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে বাহাদুরকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন। যার সি.আর মামলা নম্বর ১৫৮৮/২৪।

 

মীর্জা বাহাদুরের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান পেকুয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রাজেশ বড়ুয়া।

 

 

পূর্বকোণ/এমরান/জেইউ/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট