চট্টগ্রাম সোমবার, ২৭ মে, ২০২৪

কাল উদ্বোধন করবেন খাদিজাতুল আনোয়ার সনি এমপি

অবশেষে শুরু হচ্ছে নাজিরহাট পুরাতন ব্রিজের পুনর্নির্মাণ কাজ

এসএম মোরশেদ মুন্না, নাজিরহাট

১৫ মে, ২০২৪ | ৫:৪৩ অপরাহ্ণ

মেয়াদোত্তীর্ণ কয়েকটি পিলারে ভর করে এখনও দাঁড়িয়ে আছে ১০৫ বছর আগের নাজিরহাট পুরাতন ব্রিজ। পাঁচ বছর আগে মৃত্যুঝুঁকির কারণে ব্রিজটি দিয়ে মানুষ চলাচল নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। এতে করে অদ্যাবধি চরম ভোগান্তির মধ্যে পড়তে হচ্ছে বিভিন্ন পেশার মানুষকে।

 

অবশেষে মরণফাঁদখ্যাত শতবর্ষী সেই নাজিরহাট পুরাতন ব্রিজের পুনর্নির্মাণকাজ শুরু হচ্ছে। আগামীকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে ব্রিজের কাজ শুরু হবে বলে জানা যায়। ফটিকছড়ির সাংসদ খাদিজাতুল আনোয়ার সনি পুনর্নির্মাণকাজ উদ্বোধন করার কথা রয়েছে।

 

 

সংশ্লিষ্টরা জানান, ব্রিটিশ আমলে ১৯১৯ সালে নাজিরহাট বাজারের মধ্যবর্তী স্থানে হালদা নদীর উপর নাজিরহাট পুরাতন ব্রিজ নির্মিত হয়। স্বাধীনতা যুদ্ধে ব্রিজের এক অংশ ডিনামাইট দিয়ে উড়িয়ে দেয়া হয়েছিল। দেশ স্বাধীনের পর সংস্কারপূর্বক ব্রিজ দিয়ে গাড়ি চলাচল সচল করা হয়। সেই থেকে সরকারি অর্থায়নে ব্রিজটির আর কোন সংস্কার হয়নি।

 

জানা যায়, ২০১৭ সালের ৩ এপ্রিল ফটিকছড়ি উপজেলা প্রশাসন মৃত্যুঝুঁকি এড়াতে ব্রিজটি দিয়ে যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। এর এক বছর পর ২০১৮ সালের জুনে বন্যার পানিতে ব্রিজের মধ্যভাগ দেবে গিয়ে ব্রিজটি ঢালু হয়ে গেলে উপজেলা প্রশাসন ব্রিজ দিয়ে মানুষ চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। এরপর থেকে চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছিলেন চলাচলকারীরা।

 

প্রায় ছয় বছর পর টেন্ডার প্রক্রিয়া শেষে গত ১২ মে ব্রিজের কার্যাদেশ আসে। ব্রিজটি হবে বেইলি ব্রিজ। দৈর্র্ঘ্যে ৩শ ফুট আর প্রস্থে ১০ ফুট। সড়ক ও জনপথ বিভাগের আওতাধীন এ ব্রিজের কাজ পায় সেলিম এন্ড ব্রাদার্স নামে একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। কার্যাদেশ মতে ১৮৮ দিন অর্থাৎ, প্রায় সাত মাসের মধ্যে কাজটি সম্পন্ন করার কথা রয়েছে।

 

ঠিকাদার আবুল বশর জানান, আমি নিজেও ইতিহাসের সাক্ষী হতে যাচ্ছি। শতবর্ষী একটা ব্রিজের কাজ করতে পারায় নিজেকে ধন্য মনে করছি। ইনশাআল্লাহ, কার্যাদেশের মধ্যেই আমরা ব্রিজটির কাজ সম্পন্ন করতে চেষ্টা করবো। এজন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করছি।

পূর্বকোণ/এসএ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট