চট্টগ্রাম শনিবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২৪

সর্বশেষ:

বৃদ্ধকে ইউপি সদস্যের কনুইয়ের আঘাত বোয়ালখালীতে

বোয়ালখালী সংবাদদাতা

২৩ মার্চ, ২০২৪ | ১০:০০ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে সালিশি বৈঠকে জমি পরিমাপের সময় স্বপন কুমার ঘোষ (৭২) নামের এক বৃদ্ধকে কনুই দিয়ে বুকে আঘাত করার অভিযোগ উঠেছে সারোয়াতলী ইউনিয়ন পরিষদের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মো. দিদারুল আলমের বিরুদ্ধে।

 

শনিবার (২৩ মার্চ) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার পূর্ব শাকপুরা দিলীপ সেনের বাড়ীর একটি পুকুর পাড়ে এ ঘটনা ঘটেছে।

 

এ ঘটনায় বৃদ্ধ স্বপন কুমার ঘোষ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিয়েছেন। তিনি এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে বোয়ালখালী থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

 

পূর্ব শাকপুরা গ্রামের মৃত নকুল চন্দ্র ঘোষের ছেলে স্বপন কুমার ঘোষ বলেন, আমি অগ্রণী ব্যাংকের ম্যানেজার ছিলাম। ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতির দায়িত্বও পালন করেছি। বাড়ির পাশে প্রতিবেশিদের জায়গা পরিমাপের সময় গেলে দিদার উত্তেজিত হয়ে আজেবাজে কথা বলছিলেন। তাকে বোঝাতে গেলে তিনি আমার বুকে কনুই দিয়ে সজোরে আঘাত করেন। আমি একজন স্ট্রোকের রোগী। তার এই আচরণে হতবাক হয়ে যাই।

 

শাকপুরা ইউনিয়ন পরিষদের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য সম্ভু চৌধুরী বলেন, পূর্ব শাকপুরার স্থানীয় বিশ্বজিত সেন সাথে প্রতিবেশি ঝন্টু দত্তের জায়গা নিয়ে বিরোধ সৃষ্টি হয়। তাদের বিরোধ নিষ্পত্তির জন্য সালিশি বৈঠকের মাধ্যমে জায়গা পরিমাপ করার দিন ছিল শনিবার। সকালে জায়গা পরিমাপের সময় ইউপি সদস্য দিদার অশ্লীল ও অসংলগ্ন আচরণ করতে থাকেন। এর একপর্যায়ে হঠাৎ বৃদ্ধ স্বপন ঘোষের বুকে কনুই দিয়ে আঘাত করেন দিদার। এতে স্বপন ঘোষ তিন হাত দূরে গিয়ে মাটিতে পড়ে যান। তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা করানো হয়েছে।

 

তবে ইউপি সদস্য দিদারুল আলম এই অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, জায়গা পরিমাপের সময় ইউপি সদস্য সম্ভু চৌধুরী উল্টাপাল্টা কথা বলছিলেন। এসময় স্বপন ঘোষ আমার হাত ধরে রাখছিলেন বারবার। তার কাছ থেকে হাত ছাড়িয়ে নিয়েছি। তাকে আঘাত করিনি।

 

বোয়ালখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আছহাব উদ্দিন বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

 

পূর্বকোণ/পূজন/জেইউ/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট