চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২৪

সর্বশেষ:

এবার কর্ণফুলীতে মশার কয়েলের আগুনে পুড়ল ১৮ বসতঘর

নিজস্ব প্রতিবেদক

৫ মার্চ, ২০২৪ | ১২:৪৬ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রামের কর্ণফুলী উপজেলার চরপাথরঘাটা এলাকায় গরুর গোয়ালে দেয়া মশার কয়েলের আগুনে ১৮টি বসতবাড়ি ও দুটি গরু পুড়ে গেছে।

 

মঙ্গলবার (৫ মার্চ) গভীর রাত ৩টার দিকে চরপাথরঘাটা ইউনিয়নের ইছানগর গ্রামের ৮ নম্বর ওয়ার্ডে এ অগ্নিকাণ্ড ঘটে।

 

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সংশ্লিষ্ট এলাকার ইউপি সদস্য মাহমুদুল হক সুমন ও কর্ণফুলী মর্ডাণ ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তা শোয়াইব হোসেন মুন্সি।

 

তাৎক্ষণিক খবর পেয়ে কর্ণফুলী ফায়ার সার্ভিস দমকল বাহিনীর এক ইউনিট এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার আগেই সব পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

 

স্থানীয়রা জানান, ওই গ্রামের মো. ইসলামের গোয়াল ঘরে লাগানো মশার কয়েল থেকে আগুনের সূত্রপাত ঘটে। সেই আগুন নিমিষে ছড়িয়ে পড়ে পাশের মো. তাহের, দিল আহম্মদ, আবুল হোসেন, মো. শুক্কুর, মো. সৈয়দ, আব্দুস সালাম, মো. টিপু, শাহ আলম, বদিউল আলম, আলা উদ্দিন, সাহাব উদ্দিন, মো. ফয়েজ, মো. ছবির, আব্দুল গণি, ওমর আলী, মো. রফিক, সোনা মিয়া ও মো. শুক্কুরের বাড়িতে। এই ১৮টি বাড়িতে প্রায় ৪০-৫০ পরিবারের বসবাস ছিলো। যারা নিতান্তপক্ষে খুব অসহায় ও গরিব লোক ছিলেন।

 

এ সময় তাদের সবার টিনের ও বেড়ার ঘর, নগদ টাকা, আসবাবপত্রসহ প্রায় ২৫-৩০ লাখ টাকার সম্পদ পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এ সময় দুটি গরু অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা যায়। যার আনুমানিক মূল্যও প্রায় আড়াই লাখ টাকা।

 

কর্ণফুলী মর্ডাণ ফায়ার সার্ভিসের ওয়্যার হাউজ ইন্সপেক্টর শোয়াইব হোসেন মুন্সি জানান, ফায়ার সার্ভিস এসে আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে তার আগেই অনেকটা পুড়ে যায়। যেহেতু সবার বেঁড়া ও টিনের ঘর ছিল।

 

প্রসঙ্গত, গত ৪ মার্চ বিকেল পৌনে ৪ টার দিকে কর্ণফুলী থানার ইছানগর এলাকায় এস আলম রিফাইন্ড সুগার ইন্ডাস্ট্রিজ নামে চিনি কারখানায় অগ্নিকাণ্ড ঘটে। এতে ১ লাখ মেট্রিক টন চিনি পুড়ে যায়। এ ঘটনার ১১ ঘণ্টার মধ্যে আবারও এ অগ্নিকাণ্ড ঘটে।

পূর্বকোণ/পিআর/এসি

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট