চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২৪

হাটহাজারীর সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান কারাগারে

হাটহাজারী সংবাদদাতা

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ | ৬:০৭ অপরাহ্ণ

মন্দির ভাঙচুর মামলায় চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলা বিএনপি’র সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম চৌধুরীকে জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। তিনি হাটহাজারী উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যানও।

 

সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) হাটহাজারী থানার মন্দির ভাঙচুর (মামলা নং ৩১ (১০)২১) মামলায় চট্টগ্রাম জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-৪ (হাটহাজারী আমলি আদালত) এর বিচারক মাহমুদুল হক এ আদেশ দেন।

 

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চট্টগ্রাম উত্তর জেলা যুবদলের সহ-সভাপতি এম ইলিয়াছ আলী।

 

এদিকে, হাটহাজারী উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের বার বার নির্বাচিত সাবেক চেয়ারম্যান মাহবুবুল আলম চৌধুরীকে কারাগারে পাঠানোর নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে মুক্তির দাবি করেছেন বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য, সাবেক মন্ত্রী আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য গোলাম আকবর খোন্দকার, মুক্তিযোদ্ধা এস. এম ফজলুল হক, সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান শামীম, চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির আহবায়ক ডা. শাহাদাত হোসন, সদস্য সচিব আবুল হাশেম বক্কর, বিএনপির কেন্দ্রীয় সদস্য সাথী উদয় কুসুম বড়ুয়া, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহবায়ক আবু সুফিয়ান, সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক এনামুল হক, উত্তর জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক নুরুল আমিন চেয়ারম্যান, ইঞ্জিনিয়ার বেলায়েত হোসেন, সরওয়ার আলমগীর, কাজী মো. সালাহ উদ্দিন ও উচ্চ জেলা বিএনপির সাবেক সদস্য গাজী জাফর আলমসহ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

 

নেতৃবৃন্দ বলেন, মাহবুবুল আলম চৌধুরীকে রাজনৈতিকভাবে হয়রানির উদ্দেশ্যে এ রকম বানোয়াট ও হাস্যকর মামলায় জড়ানো হয়েছে। উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে জাতি ধর্ম নির্বিশেষে হাটহাজারীবাসী প্রত্যক্ষ ভোটে চেয়ারম্যান ও ভাইস-চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে ১০ বছর দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি কোন ন্যায়নীতির বাইরে কাজ করেননি। আমরা অবিলম্বে মাহবুবুল আলম চৌধুরীসহ সকল নেতার নি:শর্ত মুক্তির দাবি জানাচ্ছি।

 

 

পূর্বকোণ/পিআর/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট