চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪

সর্বশেষ:

‘সুষ্ঠু ভোটের আশ্বাস কতটা বাস্তবায়ন হবে সেটা নিয়ে আমি শঙ্কিত’

অনলাইন ডেস্ক

২ জানুয়ারি, ২০২৪ | ১১:১৭ পূর্বাহ্ণ

নোঙ্গর প্রতিকের প্রার্থী শিল্পপতি এম এয়াকুব আলী বলেছেন, গত ১৮ ডিসেম্বর থেকে শুরু হওয়া নির্বাচনী প্রচারে নৌকা আর ঈগল প্রতীকের প্রার্থীদের কর্মী সমর্থকদের একের পর এক হামলা মামলার ঘটনায় পটিয়ার সাধারণ ভোটারেরা আতংকিত। এ পরিস্থিতি চলতে থাকলে নির্বাচন কমিশনের সুষ্ঠু ভোটের আশ্বাস কতটা বাস্তবায়ন হবে সেটা নিয়ে আমি শঙ্কিত। স্বতন্ত্র প্রার্থী সামশুল হক চৌধুরী লুটেপুটে খেয়েছে গত ১৫ বছর। আর নৌকা প্রার্থী মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে প্রায় ৫ বছর পটিয়াকে শাসন আর শোষণ করেছে। বর্তমানে তারা পটিয়ার নির্বাচনী মাঠে তাদের ভাগবাটোয়ারা নিয়ে একে অপরের প্রতি নানা বিষেদাগার করছেন। তারা মুদ্রার এপিট আর ওপিঠ। এটা পটিয়ার মানুষ বুঝে গেছে। তাদের হাত থেকে পটিয়ার মানুষ পরিত্রাণ চাই।

 

সোমবার (১ জানুয়ারি) উপজেলার হাবিলাসদ্বীপ, কুসুমপুরা, জঙ্গলখাইন ইউনিয়নের নির্বাচনী কার্যালয় উদ্ধোধন পরবর্তী এক সভায় তিনি এসব কথা বলেন। এসময় তিনি পাচুরিয়া, গৈড়লার টেক, এবাদত খানা, দক্ষিণ হরিন খাইন, গোরন খাইন, রতনপুর, কমল মুন্সির হাট, ধলঘাট, ব্রাক্ষণ হাট, দারোগা হাট এলাকায় বিভিন্ন জনগুরুত্বপূর্ণ মোড়ে জনসংযোগ করেন।

 

তিনি বলেন, পটিয়ায় সাড়ে ছয় হাজার কোটি টাকার যে উন্নয়ন করা হয়েছে বলে নির্বাচনের মাটে সাধারণ ভোটারদের সাথে মিথ্যাচার করছেন তার জবাব দিতে আগামী ৭ জানুয়ারির দ্বাদশ জাতীয় সংসদের নির্বাচনে নোঙ্গর প্রতীকে ভোট দিয়ে তার জবাব দিতে আহবান জানান তিনি।

 

নোঙ্গর প্রতিকের প্রার্থী এম এয়াকুব আলী আরো বলেন, গত ১৫ বছরে মানুষ তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারেনি। প্রধানমন্ত্রী, নির্বাচন কমিশনের সুষ্ঠু ভোটের আশ্বাসে আমি এবারের নির্বাচনে অংশ নিয়েছি। যারা গত ১৫ বছরে কেন্দ্র গিয়ে ভোট দিতে পারেনি তারা এবার ভোট দিতে পারবে। আর ভোটাররা কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে পারলেই নোঙ্গর প্রতীকে ভোট দিয়ে দীর্ঘ দিনের বঞ্চিত শোষিত নিপিড়িত মানুষ পরিবারতন্ত্রের মাধ্যমে হালুয়া রুটির ভাগাভাগি থেকে রক্ষা পেতে আমাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবেন।

 

এসময় উপস্থিত ছিলেন, মনসুর আলম, আবদুল কুদ্দুস চৌধুরী, মোহাম্মদ আলী মেম্বার, জেবল হোসেন মেম্বার, আলহাজ্ব মোহাম্মদ ছৈয়দ, আবদুর রশিদ, মোহাম্মদ আলী, ডা. জাহাঙ্গীর, বেলাল উদ্দিন, খোরশেদ আলম, সৌরব, দেলোয়ার হোসেন, নুর ইসলাম, জাহেদুল হক, কালাম ভান্ডারী,কবির, নুরুল আলম, ওসমান, লিটন প্রমুখ।

পূর্বকোণ/পিআর

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট