চট্টগ্রাম শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪

সর্বশেষ:

চট্টগ্রাম-৪ আসনের সালাউদ্দিনের প্রার্থিতা বাতিল, লাখ টাকা জরিমানা

নিজস্ব সংবাদদাতা, সীতাকুণ্ড

৩১ ডিসেম্বর, ২০২৩ | ৫:২৬ অপরাহ্ণ

সরকারি চাকরির তথ্য গোপন করে দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে অংশ নেওয়ায় চট্টগ্রাম-৪ সীতাকুণ্ড আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. সালাউদ্দিনের প্রার্থীতা বাতিল করে তাকে এক লাখ টাকা অর্থদন্ড দেন আদালত। রবিবার (৩১ ডিসেম্বর) চেম্বার বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম এ আদেশ দেন।

শুধু তাই নয়, তথ্য গোপন করে আদালতের সাথে প্রতারণা করায় তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেবার জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ প্রদান করেন আদালত। আদালতে নির্বাচন কমিশনের পক্ষে শুনানী করেন ব্যারিস্টার খান মোহাম্মদ শামীম আজিজ। তিনি বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র থেকে প্রার্থী হয়ে নির্বাচন করছেন সীতাকুণ্ড উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য সহকারী মো. সালাউদ্দিন নামের একব্যক্তি। তার প্রতীক রকেট। নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় হলফনামায় তিনি নিজেকে একজন ফার্মেসী ব্যবসায়ী দাবী করেন। কিন্তু তিনি যে সরকারি চাকরিজীবী সে তথ্য গোপন করেন। এরপরও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে তিনি ১ শতাংশ ভোটারের সাক্ষর জমা দিলে তাতেও অনিয়ম পেয়ে তা বাতিল করেন রিটার্ণিং অফিসার। পরে তিনি আদালতে গিয়ে তার প্রার্থীতা ও প্রতীক বরাদ্দ পান। কিন্তু আদালতেও তিনি নিজেকে ব্যবসায়ী দাবী করেন। এদিকে সম্প্রতি সরকারি চাকুরির তথ্য গোপন করে তিনি যে প্রার্থী হয়েছেন সে তথ্য দেশের বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে তা আদালতের দৃষ্টিগোচর হয়। এর ফলে ৩১ ডিসেম্বর রবিবার তার প্রার্থীতা বাতিলের পাশাপাশি আদালতকে মিথ্যা তথ্য দেয়ায় ১ লাখ টাকা জরিমানার আদেশ দেন আদালত। আগামী ৭ দিনের মধ্যে জরিমানার টাকা সুপ্রীম কোর্টের ডে কেয়ার সেন্টারে জমা দিতে হবে।
একই সাথে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নিতে স্বাস্থ্য বিভাগের মহাপরিচালককে নির্দেশ দেন আদালত। দ্বাদশ সংসদ নির্বাচন এর সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও ইউএনও কেএম রফিকুল ইসলাম বলেন, আমিও আদালতের নির্দেশে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. সালাউদ্দিনের প্রার্থীতা বাতিলের কথা শুনেছি। তবে আমি এখনো লিখিত আদেশ পাইনি। তাই এর বেশি মন্তব্য করতে চাই না।

সীতাকুণ্ড উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. নুর উদ্দিন রাশেদ বলেন, আমাদের স্বাস্থ্য সহকারী মো. সালাউদ্দিন সরকারি চাকরি থেকে অব্যহতি না নিয়ে সংসদ সদস্য পদে নির্বাচনে অংশ নেয়ায় চাকরির শর্ত লংঘিত হয়েছে। শৃঙ্খলাবিরোধী কর্মকাণ্ডের কারণে মহামান্য আদালতের নির্দেশ আসার আগেই বিভাগীয় শাস্তির জন্য কর্তৃপক্ষের কাছে চিঠি পাঠিয়েছেন চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন স্যার। এখন আদালত নির্দেশ দেয়ায় দ্রুত কার্যকর হবে।
প্রসঙ্গত, স্বাস্থ্য সহকারী হিসেবে চাকরিতে যোগ দেওয়ার আগেও সালাউদ্দিন পুলিশ সদস্য হিসেবে সরকারি চাকরিতে নিযুক্ত ছিলেন। ২০১১ সালে স্বাস্থ্য সহকারী হিসেবে সীতাকুণ্ড স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যোগ দেন। চাকরি থেকে অব্যাহতি না নিয়েই দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রাম–৪ (সীতাকুণ্ড) আসন থেকে নির্বাচনে অংশ নিতে সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র জমা দেন।

পূর্বকোণ/এএইচ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট