চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪

‘প্রযুক্তিভীতি কাটিয়ে তার সর্বোচ্চ সদ্ব্যবহার করতে হবে’

বিজ্ঞপ্তি

২ ডিসেম্বর, ২০২৩ | ৭:০১ অপরাহ্ণ

প্রধান তথ্য কর্মকর্তা মো. শাহেনুর মিয়া বলেছেন, সারা বিশ্বে নতুন প্রযুক্তি উদ্ভাবনের শুরুতে একটা ভয় বা দ্বিধাদ্বন্দ্ব কাজ করে, বাংলাদেশও তার বাইরে নয়। প্রযুক্তিভীতি কাটিয়ে তার সর্বোচ্চ সদ্ব্যবহার করে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে প্রতিটি নাগরিককে কাজ করে যেতে হবে।

 

আজ শনিবার (২ ডিসেম্বর) কক্সবাজারে হিলডাউন সার্কিট হাউজের সভাকক্ষে ‘সুশাসন প্রতিষ্ঠার নিমিত্ত অংশীজনের অংশগ্রহণে কর্মশালা’য় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন।

 

আঞ্চলিক তথ্য অফিস চট্টগ্রাম, কক্সবাজার জেলা প্রশাসন এবং কক্সবাজার জেলা তথ্য অফিসের সহযোগিতায় তথ্য অধিদপ্তর এই কর্মশালার আয়োজন করেছে। কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মুহম্মদ শাহীন ইমরানের সভাপতিত্বে কর্মশালায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম অ্যান্ড অপস) শাকিল আহমেদ ও জেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি আবু তাহের। তথ্য অধিদপ্তরের সিনিয়র উপ-প্রধান তথ্য কর্মকর্তা মো. আবদুল জলিল কর্মশালায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। আঞ্চলিক তথ্য অফিস চট্টগ্রামের উপ-প্রধান তথ্য অফিসার মীর হোসেন আহসানুল কবীর অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন।

 

করোনাকালসহ সাংবাদিক ও গণমাধ্যমকর্মীদের সহায়তা প্রদানে সরকারের ভূমিকার কথা উল্লেখ করে প্রধান তথ্য কর্মকর্তা বলেন, বিশ্বে এমন ঘটনা বিরল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মানবিকতার অনেক দৃষ্টান্তের মধ্যে এটি অন্যতম।

 

সারা দেশের সাংবাদিকদের নিয়ে একটি ডাটাবেজ করা হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, তাদের পেশাভিত্তিক চাহিদা, যোগ্যতা ও অন্যান্য সংশ্লিষ্ট বিষয়ের ওপর ভিত্তি করে এই ডাটাবেজ প্রস্তুতের কাজ চলমান রয়েছে। বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিল এটি সমন্বয় করছে।

 

শাহেনুর মিয়া বলেন, দেশের জনগণ এখন ডিজিটাল বাংলাদেশের সুফল ভোগ করছে। গণমাধ্যমকর্মীরা এই ডিজিটালাইজেশনের সুবিধা নিয়ে প্রত্যন্ত অঞ্চলের খবর সারা দেশে পৌঁছে দিতে পারছেন।

 

এ সময় তিনি গণমাধ্যম বিকাশ ও অবাধ তথ্য প্রবাহ নিশ্চিতকল্পে সরকারের গৃহীত পদক্ষেপগুলো সম্পর্কে কক্সবাজার জেলার গণমাধ্যমকর্মীদেরকে অবহিত করেন।

 

দিনব্যাপী এই কর্মশালায় আঞ্চলিক তথ্য অফিস চট্টগ্রাম, কক্সবাজার জেলা তথ্য অফিসসহ জেলার বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা এবং বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা, বাংলাদেশ টেলিভিশন, বাংলাদেশ বেতারসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাংবাদিকবৃন্দ অংশগগ্রহণ করেন।

 

প্রধান তথ্য অফিসার পরে হিলটাউন সার্কিট হাউসে আঞ্চলিক তথ্য অফিস চট্টগ্রাম আয়োজিত ‘সুশাসন প্রতিষ্ঠা, অভিযোগ প্রতিকার ব্যবস্থাপনা, সেবা প্রদান প্রতিশ্রুতি ও তথ্য অধিকার আইন-২০০৯’ বিষয়ে স্টেক হোল্ডারগণের সমন্বয়ে অবহিতকরণ সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে যোগদান করেন।

 

পূর্বকোণ/জেইউ/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট