চট্টগ্রাম শনিবার, ১৫ জুন, ২০২৪

জেলের বড়শিতে ২৮ কেজির দুই কোরাল, ৩০ হাজার টাকায় বিক্রি

টেকনাফ সংবাদদাতা

৯ নভেম্বর, ২০২৩ | ৮:১৬ অপরাহ্ণ

টেকনাফের নাফ নদীতে জেলের বড়শিতে ধরা পড়েছে ২৮ কেজি ওজনের দুটি কোরাল মাছ। এসব মাছ বিক্রি হয়েছে ৩০ হাজার ৮০০ টাকায়।

বুধবার (৮ নভেম্বর) টেকনাফের হ্নীলা ও দমদমিয়া অংশের নাফনদী থেকে মাছ দুটি জেলের বড়শিতে ধরা পড়ে। পরে মাছ দুটি জেলেদের কাছ থেকে হ্নীলা বাজারের আলী আহমদ নামের এক মাছ ব্যবসায়ী ক্রয় করে নেন।

মাছ ব্যবসায়ী আলী আহমদ বলেন, দমদমিয়া এলাকার জেলে ছৈয়দ হোসাইন ১৫ কেজি ওজনের একটি কোরাল মাছ বাজারে বিক্রি করতে আনেন। পরে তার সাথে দর-কষাকষি শেষে কেজি ১ হাজার ১০০ টাকা করে ১৬ হাজার ৫০০ টাকায় ক্রয় করে নেওয়া হয়। একই সময় হ্নীলা পুরাতন বাজারের রিদুয়ান নামের আরো এক জেলের কাছ থেকে ১৩ কেজি ওজনের আরেকটি কোরাল কেজি ১ হাজার ১০০ টাকা করে ১৪ হাজার ৩০০ টাকায় ক্রয় করে নেওয়া হয়। মাছ দুটি নাফ নদীর হ্নীলা ও দমদমিয়া পয়ন্টে তাদের বড়শিতে ধরা পড়েছিল। প্রায় সময় নাফনদীতে জেলেদের বড়শিতে বড় কোরালসহ বিভিন্ন জাতের মাছ ধরা পড়ে। এতে জেলেরা খুব আনন্দিত হয়। ক্রয় করা মাছ দুটি বেশি দামে বিক্রি করার জন্য কক্সবাজারের নেওয়া হবে।

জেলে সৈয়দ হোসাইন বলেন, বড়শি নিয়ে নাফ নদীর দমদমিয়া পয়ন্টে মাছ ধরার জন্য যাই। ঘণ্টাখানেক পরে বড়শিতে ১৫ কেজি ওজনের একটি বড় কোরাল ধরা পড়ে। এরপর অন্যান্য জেলেদের সহায়তায় মাছটি তুলে হ্নীলা বাজারের আলী আহমদ নামের এক ব্যবসায়ীর কাছে কেজি ১ হাজার ১০০ টাকা করে ১৬ হাজার ৫০০ টাকায় বিক্রি করেছি।

টেকনাফ সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. দেলোয়ার হোসেন বলেন, কোরাল দ্রুত বর্ধনশীল মাছ। পরিবেশ ভালো পেলে এ মাছ সাধারণত ৩০ থেকে ৩৫ কেজি ওজনের হয়ে থাকে। কোনো কোনো সময় এর বেশি ওজনের কোরালও পাওয়া যায়। নাফ নদীর মাছ খুবই সুস্বাদু। তাই জেলেরা দামও ভালো পেয়ে থাকেন। নাফ নদীতে বড়শি ফেললে এখন বড় বড় কোরাল মাছ পাওয়া যাচ্ছে। 

পূর্বকোণ/কাশেম/আরআর/এএইচ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট