চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২৫ জুন, ২০২৪

সর্বশেষ:

ইঞ্জিন বিকল হয়ে সাগরে ভাসছিল সেন্টমার্টিনগামী জাহাজ

টেকনাফ সংবাদদাতা

২২ অক্টোবর, ২০২৩ | ৪:১১ অপরাহ্ণ

কেয়ারি ক্রুজ অ্যান্ড ডাইন নামে একটি পর্যটকবাহী জাহাজ ইঞ্জিন বিকল হয়ে সোয়া একঘণ্টা বঙ্গোপসাগরে ভেসে ছিল। এতে জাহাজে থাকা সাড়ে তিন শতাধিক পর্যটকের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

আজ (২২ অক্টোবর) টেকনাফ-সেন্ট মার্টিন নৌপথের মিয়ানমারের সীমান্তবর্তী নাইক্ষংদিয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পরে একটি ইঞ্জিন সচল করে সেন্ট মার্টিনের দিকে এগিয়ে যায় জাহাজটি।

সকাল সাড়ে ৯টার দিকে টেকনাফের দমদমিয়া ঘাট থেকে টেকনাফ-সেন্ট মার্টিন নৌপথে চলাচলকারী পর্যটকবাহী জাহাজটি সেন্ট মার্টিনের উদ্দেশে রওনা দেয়। তবে জাহাজটি দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে সেন্ট মার্টিনে পৌঁছানোর কথা থাকলেও বেলা একটা পর্যন্ত সাগরে ছিল।

জাহাজে থাকা পর্যটকরা জানান, জাহাজটি টেকনাফ থেকে ছেড়ে আসার পর বেলা ১১টার দিকে মিয়ানমারের পার্শ্ববর্তী নাইক্ষংদিয়া নামক এলাকায় পৌঁছালে জাহাজের ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়ে। তখন সাগরের মাঝখানে জাহাজটি ভাসতে থাকে। এ সময় জাহাজে থাকা নারী-পুরুষদের পাশাপাশি শিশুরা আতঙ্কিত হয়ে পড়ে। পরে দুপুর সোয়া ১২টার দিকে জাহাজের একটি ইঞ্জিন সচল হলে ধীরে ধীরে সেন্ট মার্টিনের দিকে রওনা দেয়। বেলা একটা পর্যন্ত জাহাজটি সাগরে ছিল।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) সূত্র জানায়, গত ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে এই নৌপথে এমভি বার আউলিয়া নামক জাহাজটি পরীক্ষামূলকভাবে চালু হয়। এরপর কেয়ারি সিন্দাবাদ ও কেয়ারি ক্রুজ অ্যান্ড ডাইন প্রতিদিন পর্যটক পরিবহন করে আসছে। আরও কয়েকটি জাহাজ এ নৌপথে অনুমোদনের অপেক্ষায় আছে।

কেয়ারি ক্রুজ অ্যান্ড ডাইনের ব্যবস্থাপক (হিসাব) মো. শাহ আলম বলেন, যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে এ ঘটনা ঘটেছে। একটি ইঞ্জিন চালু হয়েছে। ইঞ্জিন সচল করে সেন্ট মার্টিনের দিকে রওনা হয় জাহাজটি। নির্দিষ্ট সময়ের চেয়ে কিছু দেরিতে জাহাজটি সেন্টমার্টিন জেটি ঘাটে পৌঁছায়।

পূর্বকোণ/এএইচ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট