চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২৮ মে, ২০২৪

সর্বশেষ:

দুই ভাইয়ের মৃত্যুতে শোকের ছায়া

রাউজানের সেই বিয়ে হলো সংক্ষিপ্ত পরিসরে

জাহেদুল আলম, রাউজান

১৫ জুলাই, ২০২৩ | ১২:১২ অপরাহ্ণ

নিকটাত্মীয়ের বিয়ের বাজার করতে যাওয়ার পথে মোটরবাইক দুর্ঘটনায় দুই মামাতো-ফুফাতো ভাই নিহত হওয়ার ঘটনায় গতকাল শুক্রবার রাত পর্যন্ত কোন মামলা হয়নি। অন্যদিকে নিহতদের আত্মীয়-স্বজন, প্রতিবেশীদের চোখের জলে নিজ নিজ বাড়িতে স্ব স্ব ধর্মীয় সৎকার হয়েছে দু’জনের মরদেহ। দুই আপনজনের আকস্মিক বিদায়ে নিহতের আত্মীয়ের বিয়ে বাড়িটি বিষাদে পরিণত হয়েছে।

 

নোয়াপাড়া পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ টুটুন মজুমদার বলেন, ‘দুর্ঘটনায় নিহত বোয়ালখালী উপজেলার পূর্ব গোমদণ্ডী দলই বাড়ির মন্টু চৌধুরীর ছেলে জয় চৌধুরী (২৮) ও তার ফুফাতো ভাই রাঙ্গুনিয়া উপজেলার বুড়ির দোকান এলাকার দোলন তালুকদারের ছেলে অন্তু তালুকদারের (২৩) মরদেহের ময়নাতদন্ত শেষে দু’জনকে শুক্রবার দুপুরের পর স্ব স্ব পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তবে ওই ঘটনায় শুক্রবার রাত ১০টা পর্যন্ত কোন মামলা হয়নি।’

 

নিহত দু’জনের আত্মীয় উৎপল মহাজন অরুন বলেন ‘শুক্রবার বিকেল ৫টায় রাঙ্গুনিয়ার নিজ বাড়িতে সৎকার করা হয় জয় চৌধুরী। অন্যদিকে অন্তুর সৎকার করা হয় একইদিন সন্ধ্যা ৬টায় বোয়ালখালীর বাড়িতে।’

 

এদিকে যার বিয়ে উপলক্ষে জয়, অন্তু রাউজানের উরকিরচরে এসেছিলেন, সেই বিয়ে বাড়িটি ঘটনার পর থেকেই শোকাচ্ছন্ন হয়ে পড়ে। বিয়ের বাড়ির সেই উৎসব নিমিষেই বিষাদে পরিণত হয়। তবে পূর্ব নির্ধারিত হিন্দু ধর্মীয় রীতি অনুযায়ী (গতকাল শুক্রবার) লগ্ন থাকায় সেই বিয়েটি সংক্ষিপ্ত পরিসরে গতকাল রাতে সম্পন্ন হয়েছে।

 

উৎপল মহাজন অরুন বলেন ‘নোয়াপাড়া পথেরহাটের একটি কমিউনিটি সেন্টারে বিয়েটি জমজমাট আকারে হওয়ার কথা ছিল। বরযাত্রী থাকার কথা ছিল ৩শ’র অধিক। জয়, অন্তুর মৃত্যুতে জুয়েল বিশ্বাসের বিয়েটিতে মাত্র ৩০-৩৫ জন বরযাত্রী গিয়ে সংক্ষিপ্ত পরিসরে বিয়েটি সম্পন্ন করে।’

 

তিনি আরো জানান, বৃহস্পতিবার জুয়েলের বস্ত্রলংকার ছিল। সেই বস্ত্রলংকারের জিনিসপত্র ছিল আলমিরাবন্দী। সেই আলমিরার চাবি ছিল জয় চৌধুরীর কাছে। দুর্ঘটনায় জয় মারা যাওয়ার পর সেই আলমিরার তালা ভেঙ্গে বস্ত্রলাংকারের জিনিসপত্র কন্যার বাড়িতে পাঠাতে হয়।

 

উল্লেখ্য যে, রাউজানের উরকিরচরের মাইজ্জ্যা মিয়ার ঘাটা এলাকার প্রয়াত বীর মুক্তিযোদ্ধা চিত্ত রঞ্জন বিশ্বাসের ছেলে ছোট ছেলে জুয়েল বিশ্বাসের বিয়ে উপলক্ষে গত বুধবার এসেছিলেন কাপ্তাই উপজেলার ফায়ার ফাইটার জয় ও দোকান কর্মচারী অন্তু। তারা বৃহস্পতিবার সাড়ে ৬টার দিকে বিয়ে বাড়ি থেকে বিয়ের বাজার করার জন্য মোটরবাইকযোগে চট্টগ্রাম শহরে যাওয়ার সময় সকাল থেকে বিকল হয়ে কাপ্তাই সড়কের বৈজ্জাখালী গেইটে দাঁড়িয়ে থাকা একটি বালুর ট্রাকের সাথে সংঘষ ঘটে তাদের মোটরবাইকটির। এতে ফুফাতো-মামাতো ভাই দু’জনই প্রাণ হারান।

 

কাপ্তাই ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন কর্মকর্তা শাহাদাত হোসেন বলেন ‘ফুফাতো ভাইয়ের বিয়ের জন্য জয় চৌধুরী ১১ জুলাই থেকে ছুটিতে ছিলেন। ২০১৪ সালের ২১ আগস্ট তিনি চাকরিতে যোগ দিয়েছিলেন।’

পূর্বকোণ/মাহমুদ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট