চট্টগ্রাম বুধবার, ২২ মে, ২০২৪

সর্বশেষ:

শান্তিচুক্তি বাস্তবায়ন হলে পাহাড়ে নারীরা তাদের ন্যায্য অধিকার পেত: সন্তু লারমা

রাঙামাটি প্রতিনিধি

১৩ জুন, ২০২৩ | ২:১৯ অপরাহ্ণ

পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের চেয়ারম্যান জ্যোতিরিন্দ্র বোধি প্রিয় ওরফে সন্তু লারমা বলেছেন, পাহাড়ের নিপীড়িত, নির্যাতিত মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য পার্বত্য চুক্তি স্বাক্ষর করা হলেও চুক্তি বাস্তবায়ন না হওয়ায় পাহাড়ে নারীদের অধিকার সংরক্ষিত হচ্ছে না। বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা প্রোগ্রেসিভসহ কয়েকটা উন্নয়ন সংস্থা আয়োজিত পাহাড়ী নারীদের বিবাহ নিবন্ধন বিষয়ক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সন্তু লারমা এসব কথা বলেন।

 

সোমবার (১২ জুন) সকালে পোগ্রেসিভসহ কয়েকটা বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা আয়োজিত পাহাড়ি নারীদের বিবাহ নিবন্ধন বিষয়ক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ সব কথা বলেন। রাঙামাটি শহরের আশিকা কনভেনশন হলে আয়োজিত অনুষ্ঠানে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সাবেক সদস্য নিরূপা দেওয়ানের সভাপতিত্বে কর্মশালায় আরো বক্তব্য রাখেন চাকমা সার্কেল চীফ ব্যারিষ্টার দেবাশীষ রায়, স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রোগ্রেসিভের নির্বাহী পরিচালক সুচরিতা চাকমা।

 

সন্তু লারমা আরও বলেন, নারীদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় বিবাহ নিবন্ধন প্রয়োজন, বিবাহের একটি প্রমাণপত্র অনেক কাজে লাগে। এটি নারীদের অধিকারেরও অংশ। বিবাহ বন্ধন ও বিবাহ বিচ্ছেদ দুটি বিষয়ে অর্ন্তভুক্ত থাকতে হবে। চুক্তি বাস্তবায়ন হলে নারীরা তাদের ন্যায্য অধিকার ফিরে পেত।

 

বিশেষ অতিথি চাকমা সার্কেল চীফ রাজা দেবাশীষ রায় বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে পাহাড়ী নারীদের বিবাহ নিবন্ধন না থাকায় এখানকার পাহাড়ি জনগণ বিদেশ গমন, বিবাহ বিচ্ছেদসহ নানান সমস্যায় পড়েন। এটি থেকে মুক্তির জন্য বিবাহ নিবন্ধনের প্রয়োজন আছে। এটি করতে কাউকে জোর করা হবে না তবে আমরা উদ্বুদ্ধ করব। কার্বারি (গ্রাম প্রধান) বিবাহ সনদ দিবে না। শুধুমাত্র হেডম্যান এ বিবাহ সনদ দিবেন। রাজাও বিবাহ সনদ দিবে। কিন্তু গ্রামের মানুষ দুর্গমতা ও অর্থের অভাবে রাজার কাছে আসতে পারে না।

 

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন খাগড়াপুর মহিলা কল্যাণ সমিতির নির্বাহী পরিচালক শেফালিকা ত্রিপুরা, অনন্যা কল্যাণ সংগঠনের নির্বাহী পরিচালক ডনাই প্রু নেলী, বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘের পরিচালক শাহনাজ সুমি, সিএইচট উইমেন্স এক্টিভিস্টের সদস্য নুকু চাকমা, হেডম্যান মংনু মারমা।

 

কর্মশালা শুরুর আগে পাহাড়িদের বিবাহ নিবন্ধন বিষয়ে এক প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন এড. সুস্মিতা চাকমা।

পূর্বকোণ/পিআর/এএইচ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট