চট্টগ্রাম রবিবার, ২৬ মে, ২০২৪

সর্বশেষ:

ধসের আশঙ্কায় কক্সবাজারে পাহাড়ি এলাকায় মাইকিং

কক্সবাজার সংবাদদাতা

১৪ মে, ২০২৩ | ২:০২ অপরাহ্ণ

অতিপ্রবল ঘূর্ণিঝড় মোখার প্রভাবে সকাল থেকে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হচ্ছে। এতে করে কক্সবাজারের বিভিন্ন এলাকায় পাহাড় ধসের আশঙ্কা করা হচ্ছে। বিশেষ করে শহরে পাহাড় বেষ্টিত পাহাড়তলী, লাইট হাউস পাড়া, ঘোনা পাড়া, বাদশা ঘোনা, কবরস্থান পাড়া, সাহিত্যিকা পল্লী ও সার্কিট হাউসপাড় এলাকা ঝুঁকিতে রয়েছে। এ জন্য পাহাড়ের পাদদেশ বা চূড়ায় ঝুঁকিপূর্ণ আবাস গড়া লোকজনদের নিরাপদ আশ্রয়স্থলে সরে যেতে নির্দেশ দিয়ে মাইকিং করেছে কক্সবাজার জেলা প্রশাসন। একই সাথে প্রতিটি পাহাড়ি এলাকায় মাইকিং করছে জনপ্রতিনিধি ও আওয়ামীলীগ-ছাত্রলীগ নেতারা।

 

স্বেচ্ছায় ঝুঁকিপূর্ণ পাহাড় থেকে না সরলে অভিযানের মাধ্যমে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও হুঁশিয়ারি দেন কক্সবাজার সদর সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. জিল্লুর রহমান।

 

এদিকে শনিবার সন্ধ্যা থেকে এবং আজ রবিবার (১৪ মে) সকালে জেলা প্রশাসনের নির্দেশে মাইকিং করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কক্সবাজার দক্ষিণ বন বিভাগের সদর রেঞ্জ কর্মকর্তা সমীর রঞ্জন সাহা।

 

তিনি বলেন, পাহাড়ে ঝুঁকিপূর্ণভাবে বসবাসরত জনসাধারণকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরে যেতে মাইকিং করা হয়। যদি নিজেরা সরে না আসলে আইন প্রয়োগে তাদেরকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে দেওয়া হবে। শুধু কক্সবাজার শহরে নয়, কক্সবাজার দক্ষিণ বনবিভাগের যেই সব এলাকা ঝুঁকিতে রয়েছে সব স্থানে মাইকিং করা হয়েছে।

 

কক্সবাজার পৌরসভার ১২ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহেদ আলী শাহেদ বলেন, আমার এলাকায় বেশিরভাগ মানুষের বসবাস পাহাড়ে। অতি বৃষ্টিপাতে পাহাড় ধসের ঝুঁকি থাকে। এসব পাহাড়ে বসবাসকারীদের নিরাপদ আশ্রয়ে চলে যেতে শনিবার বিকাল থেকে মাইকিং করা হয়েছে। আজ রবিবারও সকাল থেকে মাইকিং করা হচ্ছে।

 

জানা গেছে, শহরের লাইটহাউজ, ফাতেরঘোনা, কলাতলী, আদর্শগ্রাম, পাহাড়তলী, বৈদ্যঘোনা, খাজামঞ্জিল, ঘোনারপাড়া, মোহাজের পাড়া, কবরস্থান পাড়া, গরুর হালদা সড়ক, সিটি কলেজ এলাকা, সাহিত্যিকা পল্লী, বিজিবি ক্যাম্প সংলগ্ন এলাকাসহ ৬টি ওয়ার্ডে পাহাড়ে বিপুল সংখ্যক মানুষ ঝুঁকিপূর্ণভাবে বসবাস করে। ভারি বৃষ্টিপাতে পাহাড় ধসে এসব এলাকায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে। অতীতেও এসব পাহাড় ধস হয়েছে।

 

এছাড়া মহেশখালী, পেকুয়া, চকরিয়া, রামু, উখিয়া, টেকনাফ ও কক্সবাজার সদরের পাহাড়ি এলাকায় পাহাড় ধসের আশঙ্কা দেখা দেয়ায় সেখানেও মাইকিং করা হয়েছে।

পূর্বকোণ/পিআর/এএইচ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট