চট্টগ্রাম সোমবার, ২৪ জুন, ২০২৪

চোরাই বাইক উদ্ধার করে মালিককে ফিরিয়ে দিল পুলিশ

লামা-আলীকদম সংবাদদাতা

২১ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ | ৬:০৬ অপরাহ্ণ

চুরি যাওয়া মোটরসাইকেল উদ্ধার করে মালিককে বুঝিয়ে দিয়েছে লামা থানা ও লামা ট্রাফিক পুলিশ।

 

মঙ্গলবার (২১ ফেব্রুয়ারি) লামা সার্কেল ট্রাফিক অফিস কম্পাউন্ডে প্রকৃত মালিক মো. সরওয়ার (২৫) এর হাতে গাড়ি বুঝিয়ে দেন লামা ট্রাফিক ইন্সপেক্টর সৈকত দাশ।

 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- ট্রাফিক সার্জেন্ট শেখ রাসেল ও সদস্য রথীন্দ্রনাথ দাস।

 

লামা ট্রাফিক পুলিশ জানায়, কিছুদিন ধরে লামা উপজেলার বিভিন্ন স্থান থেকে মোটরসাইকেল চুরির খবর পায় লামা থানা পুলিশ। তারপর থেকে লামা থানা ও ট্রাফিক বিভাগ টহল কার্যক্রম জোরদার করে। আজ মঙ্গলবার সকাল ৭টায় ঘনকুয়াশায় সন্দেহভাজন ব্যক্তি লামা পৌরসভার লাইনঝিরি মোড় দিয়ে মোটর সাইকেল চালিয়ে যাওয়ার সময় তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সিগনাল দেয় ট্রাফিক পুলিশ সদস্য রথীন্দ্রনাথ দাস। সিগনাল দেয়ায় গাড়িটি ফেলে পালিয়ে যায় লোকটি। উদ্ধার মোটরসাইকেলটির ইঞ্জিন সুইস ডাইরেক্ট ও লক ভাঙ্গা দেখে চোরাই মোটরসাইকেল বলে ধারনা করা হয়। বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার হলে গাড়ির মালিক মালিকানার কাগজপত্র নিয়ে থানায় আসে। পরে কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করে ও মালিক মামলা করতে না চাইলে গণমাধ্যম কর্মীদের উপস্থিতিতে তাকে গাড়ি হস্তান্তর করা হয়।

 

গাড়ির মালিক মো. সরওয়ার বলেন, রাত তিনটার পরে আমার ঘর থেকে তালা ভেঙ্গে চোর আমার মোটরসাইকেল নিয়ে যায়। লামা থানা ও ট্রাফিক পুলিশের সহায়তায় আমি গাড়িটি ফিরে পেয়েছি। আমি মোটরসাইকেল ভাড়া চালিয়ে সংসার চালাই। আমার জীবিকার মাধ্যমটি ফিরিয়ে দেয়ায় আমি পুলিশের কাছে কৃতজ্ঞ।

 

লামা সার্কেল ট্রাফিক পুলিশের ইন্সপেক্টর সৈকত দাশ বলেন, বান্দরবান পুলিশ সুপার মো. তারিকুল ইসলাম ও লামা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহীদুল ইসলাম চৌধুরী এর নির্দেশনায় আমাদের চোরাই গাড়ি উদ্ধার অভিযান জোরদার করা হয়। গাড়ির মালিক মামলা না করায় গাড়িটি মালিকের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। পাশাপাশি চোর সিন্ডিকেট আটকে পুলিশি তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে।

 

 

পূর্বকোণ/জেইউ/এএইচ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট