চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ১৮ জুন, ২০২৪

ঘূর্ণিঝড় ‘মোখা’ নিয়ে আবহাওয়াবিদের শঙ্কা, আঘাত হানবে বাংলাদেশে!

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা অফিস

৯ মে, ২০২৩ | ১১:২৯ পূর্বাহ্ণ

দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন দক্ষিণ আন্দামান সাগর এলাকায় একটি লঘুচাপ সৃষ্টি হয়েছে এবং এটি ঘনীভূত হতে পারে। এটি শক্তিশালী হয়ে শেষ পর্যন্ত ঘূর্ণিঝড় ‘মোখা’য় রূপ নিতে পারে এবং সেটি বাংলাদেশ উপকূলে আঘাত হানারও শঙ্কা রয়েছে। আমেরিকা ও ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের আবহাওয়া পূর্বাভাসে এ শঙ্কার কথা জানানো হয়। গত ৮ মে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের আবহাওয়া পূর্বাভাসে বলা হয়, সম্ভাব্য ঘূর্ণিঝড় মোখা সরাসরি খুলনা ও বরিশাল বিভাগের ওপর দিয়ে ১৪ মে রাত ১২টার পরে থেকে এবং আমেরিকান আবহাওয়া পূর্বাভাসে সরাসরি চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার জেলার ওপর দিয়ে ১৪ মে সকাল ৬টার পর থেকে স্থল ভাগে আঘাত হানতে পারে বলে আশঙ্কা করা হয়।

এদিকে, ভারতের আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, বাংলাদেশ এবং মিয়ানমার উপকূলেই আছড়ে পড়বে এই ঘূর্ণিঝড়। আজ মঙ্গলবার এই নিম্নচাপ আরও শক্তি বাড়িয়ে ঘূর্ণাবর্তে পরিণত হবে। আর, আগামীকাল বুধবার তা ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে পারে। এর পর ১১ মে পর্যন্ত ঘূর্ণিঝড়টি প্রাথমিকভাবে উত্তর-পশ্চিম দিকে পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগরের উপরে এগোতে থাকবে। এরপর তা আচমকা উল্টো দিতে বাঁক নিতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। গতিমুখ পরিবর্তন করে সেটি উত্তর-পূর্ব দিকে বাংলাদেশ এবং মায়ানমার উপক‚লের দিকে এগোবে। তবে কবে এই ঘূর্ণিঝড় বাংলাদেশ এবং মায়ানমার উপকূলে আছড়ে পড়বে, তা এখনও বলতে পারেননি ভারতীয় আবহবিদরা।

এদিকে, বাংলাদেশের আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপটি শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ‘মোখা’য় রূপ নিতে পারে। পরে এটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিয়ে কোন দিকে যাবে, তা এখনও স্পষ্ট নয়। ধারণা করা হচ্ছে, লঘুচাপটি মধ্য বঙ্গোপসাগরে আসতে পারে ১২ বা ১৩ মে। সেসময় এর প্রভাবে বাংলাদেশে কিছু বৃষ্টি হতে পারে। বাংলাদেশের আবহাওয়ার পূর্বাভাসে আরও বলা হয়েছে, একটি ঘূর্ণিঝড় সৃষ্টি হওয়ার আগে চারটি ধাপ পার হতে হয়- লঘুচাপ, সুস্পষ্ট লঘুচাপ, নিম্নচাপ ও গভীর নিম্নচাপ। পঞ্চম বা শেষ ধাপে গিয়ে এটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে এবং এর জন্য বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় ৬২ থেকে ৮৮ কিলোমিটার হতে পারে। গতকাল আবহাওয়া দফতর থেকে এ পূর্বাভাস দেয়া হয়।

এদিন বেলা ১১টার দিকে ঘূর্ণিঝড় ‘মোখা’ সংক্রান্ত বেশকিছু তথ্য জানিয়েছেন কানাডার সাসকাচোয়ান বিশ্ববিদ্যালয়ের আবহাওয়া ও জলবায়ু বিষয়ক পিএইচডি গবেষক মোস্তফা কামাল পলাশ। ঘূর্ণিঝড় আম্পান নিয়ে তার পূর্বাভাস অনেকটাই সত্য হয়েছিল। তিনি ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন ও আমেরিকার দেয়া আলাদা দুটি আবহাওয়া পূর্বাভাস মডেল বিশ্লেষণ করে ফেসবুকে দেয়া স্ট্যাটাসে জানিয়েছেন, খুবই শক্তিশালী হতে পারে এ ঘূর্ণিঝড় ‘মোখা’। এটি বাংলাদেশ উপক‚লে আঘাত হানার শঙ্কা রয়েছে।

সাগরে লঘুচাপ, গরম থাকবে আরও দু’দিন : এদিকে ঝড়ের এ পূর্বাভাসের মধ্যেই দেশের বিভিন্ন এলাকায় নতুন করে শুরু হয়েছে তাপপ্রবাহ। গরমে দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে জনজীবন। ঢাকার আবহাওয়া অফিস জানায়, দুই সপ্তাহের ব্যবধানে দেশজুড়ে ফের বইছে তীব্র তাপদাহ। অসহনীয় গরমে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে জনজীবন। আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা গেছে, এই গরম থাকতে পারে অন্তত আরও দু’দিন। এরপর তাপমাত্রা কিছুটা কমতে পারে।

এরইমধ্যে গতকাল দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন দক্ষিণ আন্দামান সাগর এলাকায় সৃষ্টি হয়েছে লঘুচাপ। লঘুচাপটি মধ্য বঙ্গোপসাগরে আসতে পারে ১২ বা ১৩ মে। তখন এইটি নি¤œচাপে পরিণত হতে পারে। সেসময় এর প্রভাবে বাংলাদেশে কিছু বৃষ্টি হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস। গতকাল দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৯ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে চুয়াডাঙ্গায়। আর ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৭ দশমিক ৭ ডিগ্রি।

পূর্বকোণ/এ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট