চট্টগ্রাম সোমবার, ২৪ জুন, ২০২৪

সর্বশেষ:

ইংল্যান্ডকে হারিয়ে অজিদের টানা দ্বিতীয় জয়

স্পোর্টস ডেস্ক

৯ জুন, ২০২৪ | ২:৪৩ অপরাহ্ণ

ব্যাটারদের সম্মিলিত প্রচেষ্টা আর বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে টানা দ্বিতীয় জয় পেল অস্ট্রেলিয়া। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে এবারের বিশ্বকাপে প্রথম দুইশ রান করে তা দারুণভাবে ডিফেন্ড করল অজিরা।

 

রবিবার (৯ জুন) নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ইংলিশদের ৩৬ রানে হারিয়েছে মার্শবাহিনী। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে এটি অস্ট্রেলিয়ার দ্বিতীয় জয়। এর আগের জয়টি ২০০৭ বিশ্বকাপের।

 

আগে ব্যাট করে ৭ উইকেটে ২০১ রান করে অস্ট্রেলিয়া। জবাবে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৬৫ রান তুলতে পারে ইংল্যান্ড। এই জয়ে গ্রুপের শীর্ষে উঠে এলো অজিরা। আর দুই ম্যাচে মাত্র ১ পয়েন্ট নিয়ে সুপার এইটে যাওয়ার স্বপ্ন প্রায় শেষ ইংল্যান্ডের।

 

লক্ষ্য তাড়ায় নেমে শুরুটা দারুণ হয়েছিল ইংল্যান্ডের। দুই ওপেনার ফিলিপ সল্ট ও জস বাটলার মিলে গড়েছিলেন ৭১ রানের জুটি। বলের সঙ্গে পাল্লা দিয়েই রান তুলেছেন তারা। ২৩ বলে ৩৭ রান করে অষ্টম ওভারের প্রথম বলে অজি লেগ স্পিনার এডাম জাম্পার বলে বোল্ড হন সল্ট।

 

অন্যপ্রান্তে সাবলীলভাবেই খেলছিলেন বাটলার। কিন্তু ২৮ বলে ৪২ রান করে তিনিও শিকার হন জাম্পার। এই দুই আঘাতের পর কার্যত খেই হারিয়ে ফেলে ইংলিশরা। মাঝে জ্যাকস (১০), জনি বেয়ারস্টো (৭) বিদায় নিলে বিপর্যয়ে পড়ে যায় তারা। যা থেকে আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি বাটলারবাহিনী।

 

শেষদিকে মঈন আলীর ১৫ বলে ২৫ ও হ্যারি ব্রুকের ১৬ বলে ২০ রানের ছোট দুই ক্যামিও তাই হারের ব্যবধান কমানো ছাড়া কোন কাজে আসেনি। বল হাতে অস্ট্রেলিয়ার জাম্পা ও প্যাট কামিন্স ২টি করে উইকেট নিয়েছেন।

 

এর আগে টস জিতে ফিল্ডিং বেছে নেয় ইংল্যান্ড। কিন্তু তাদের সিদ্ধান্ত ভুল প্রমাণ করেন অজি ব্যাটাররা। দুই ওপেনার ট্রাভিস হেড ও ডেভিড ওয়ার্নার মিলে ৫ ওভারেই তুলে ফেলেন ৭০ রান। পঞ্চম ওভারের শেষ বলে আউট হন ওয়ার্নার। ইংলিশ অলরাউন্ডার মঈন আলীর বলে বোল্ড হওয়ার আগে ১৬ বলে ৪ ছয় ও ২ চারে ৩৯ রান করেন অজি ওপেনার।

 

ওয়ার্নারের পর বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি হেড। ষষ্ঠ ওভারে ইংলিশ ফাস্ট বোলার জোফরা আর্চারের বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন তিনি। হেডের ব্যাট থেকে আসে ১৮ বলে ৩৪ রানের ইনিংস। সেখান থেকে জুটি গড়েন অজি অধিনায়ক মিচেল মার্শ ও চারে নামা গ্লেন ম্যাক্সওয়েল।

 

২৫ বলে ৩৫ রান করে মার্শ যখন ফেরেন, তখনও ওভারপ্রতি প্রায় দশ করে রান ছিল অস্ট্রেলিয়ার। সেই ধারা বজায় ছিল ম্যাক্সওয়েল (২৫ বলে ২৮ রান) ফিরে যাওয়ার পরও। শেষদিকে মার্কাস স্টয়নিসের ১৭ বলে ৩০ ও ম্যাথু ওয়েডের ১০ বলে অপরাজিত ১৭ রানের ইনিংসে ভর করে ২০০ ছাড়ায় অস্ট্রেলিয়া।

 

পূর্বকোণ/মাহমুদ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট