চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২৫ জুন, ২০২৪

সর্বশেষ:

আজ শীর্ষস্থানের লড়াই

স্পোর্টস ডেস্ক

৫ নভেম্বর, ২০২৩ | ১২:০৪ অপরাহ্ণ

বিশ্বকাপ মানেই দক্ষিণ আফ্রিকার জন্য করুণ সব গল্প। এ পর্যন্ত ৪টি বিশ্বকাপ সেমিফাইনাল খেলেছে কিন্তু ফাইনাল তাদের কাছে এখনো অধরা রয়ে গেছে। আর তাদের হারগুলি যেমন বিস্ময়ের তেমনি মর্মান্তিক। ১৯৯২ বিশ্বকাপে বৃষ্টি আইনে ১ বলে ২২ রানের সমীকরণ আর ১৯৯৯ এ সেমিফাইনালে ‘টাই’- যাকে অনেকে বিশ্বকাপের সেরা ম্যাচ বলে অভিহিত করেন। এ সমস্ত কারণে তাদের নামের পেছনে ‘চোকার’ তকমা শক্তভাবে সেঁটে বসেছে। এবারের বিশ্বকাপে তাই দক্ষিণ আফ্রিকাাকে নিয়ে তেমন প্রত্যাশা ছিল না। কিন্তু এ পর্যন্ত অসাধারণ ক্রিকেট নৈপুণ্য প্রদর্শন করে তারা বিশ্বকাপের অন্যতম দাবিদার হয়ে উঠেছেন। ৭ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট আর (+)২.২৯ রানরেটে তারা তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে অবস্থান করছেন। একটি মাত্র পরাজয় নেদারল্যান্ডসে বিপক্ষে। যাকে অনেকে অঘটন বলছেন। দক্ষিণ আফ্রিকার স্কোয়াডে ৮ জনেরই এবার প্রথম বিশ্বকাপ। তবে দক্ষিণ আফ্রিকার পেস বিভাগ রোমাঞ্চকর। এনগিডি, ইয়ানসেন ও কোয়েৎজিদের সঙ্গে রয়েছেন অভিজ্ঞ কাগিসো রাবাদা। স্পিন আক্রমণে কেশব মহারাজের সঙ্গে রয়েছে ‘রিস্ট স্পিনার’ তাবারেজ শামসি। ব্যাটিংয়ে কুইন্টন ডি কক, রেসি ফন ডার ডুসেন, এইডেন মার্করাম, ডেভিড মিলার পরীক্ষিত নাম। আর এর সঙ্গে হেনরিক ক্লাসেন যে কোন বোলিং আক্রমণের বিপক্ষে দ্রুত রান তুলতে পারেন। এ পর্যন্ত খেলার পরিক্রমায় আমরা এবারের বিশ্বকাপে অন্যরকম দক্ষিণ আফ্রিকার দেখা পাচ্ছি। যারা দক্ষিণ আফ্রিকার বিশ্বকাপের ইতিহাস পাল্টাতে বদ্ধপরিকর।

 

এবারের বিশ্বকাপে ভারতের অবস্থান তালিকার শীর্ষে। ৭ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট আর (২.১০২) তাদের নেট রানরেট। এর আগের ম্যাচে ভারত প্রথম ব্যাট করে শ্রীলঙ্কাকে রানের পাহাড়ে চাপা দেয় আর ভারতের পেস ব্যাটারি তাদের ২০ ওভারে ৫৫ রান গুড়িয়ে দিয়ে জয় ছিনিয়ে নেয় যে ক্রিকেট বিশ্বকে চমকে দিয়েছে।

 

২০১১ সালে ভারত বিশ্বকাপ জয় করেছিল ধোনির নেতৃত্বে আয়োজক হিসেবে। তাই এবারও যে শিরোপা ছাড়া ভারতের আর কোন লক্ষ্য নেই সেটা বলাই বাহুল্য। আর তার প্রমাণ এখনও পর্যন্ত ভারতীয় দল দিয়েছে। ভারতের ব্যাটিং লাইন আপ বেশ সমৃদ্ধ- রোহিত শর্মা, শুভমন গিল বিরাট কোহলি, শ্রেয়াস আয়ার, লোকেশ রাহুল নির্ভরযোগ্য। হার্দিক পান্ডিয়ার ইনজুরি দলের ভারসাম্য নষ্ট করলেও সূর্যকুমার যাদব ও রবীন্দ্র জাদেজা সে অভাব বুঝতে দিচ্ছেন না। এছাড়া ‘ডাগ-আউট’ও ভীষণ সমৃদ্ধ ঈশান কিষান, অক্ষর প্যাটেল, শার্দুল ঠাকুর যে কোন মুহূর্তে দলে ঢুকে পড়তে পারেন। পেস আক্রমণে ভারত এ মুহূর্তে বিশ্বসেরা বললে অত্যুক্তি হবে না। বুমরাহ, শামি, সিরাজ প্রতিপক্ষের ত্রাস। স্পিনে কুলদীপ যাদব- তার জাত চিনিয়েছেন। খেলাটি অনুষ্ঠিত হচ্ছে কোলকাতার ইডেন গার্ডেন এ। তাছাড়া আজ ‘বিরাট কোহলি’র জন্মদিন। মাঠে সমর্থকদের উল্লাসে ফেটে পরার অন্যতম উপলক্ষ। কোহলি জ্বলে ওঠা মানেই প্রতিপক্ষের জন্য দুঃস্বপ্ন। নতুন ম্যাচ ফলকের অপেক্ষায় আজকে সবার দৃষ্টি থাকবে তার ওপর। আমরা ও অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করবো।

 

পূর্বকোণ/আরডি

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট