চট্টগ্রাম রবিবার, ২৩ জুন, ২০২৪

ডেথ ওভারের নৈপুণ্যে প্রোটিয়াদের ৩১১ রানে থামিয়েছে অস্ট্রেলিয়া

ক্রীড়া ডেস্ক

১২ অক্টোবর, ২০২৩ | ৬:৫০ অপরাহ্ণ

কুইন্টন ডি কক যেভাবে তাণ্ডব শুরু করেছিলেন তাতে আরও বড় স্কোরের সুযোগ ছিল দক্ষিণ আফ্রিকার। কিন্তু বিশ্বকাপে লখনউতে আজ অস্ট্রেলিয়াকে ৩১২ রানের লক্ষ্যই দিতে পেরেছে প্রোটিয়া দল। টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ৭ উইকেটে তারা ৩১১ রান করতে পেরেছে।

ডেথ ওভারের সময় এইডেন মারক্রাম ও হাইনরিখ ক্লাসেনের মতো মারকুটে ব্যাটার থাকার পরেও ওই মুহূর্তে তাদের চেপে ধরে ম্যাচে ফিরেছে অস্ট্রেলিয়া। তাদের দারুণ বোলিংয়েই প্রোটিয়া দল বেশি দূর যেতে পারেনি। অবশ্য গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্তে অজিদের ক্যাচ মিসের ঘটনা না ঘটলে স্কোরটা আরও কম হওয়ার সম্ভাবনা ছিল। ৫টি ম্যাচ হাতছাড়া করেছে অজি দল।

টস জিতে প্যাট কামিন্স বলেছিলেন পিচ কেমন আচরণ করবে সেটি নিয়ে নিশ্চিত নন তিনি। এই কারণে প্রোটিয়াদের ব্যাটিংয়ে পাঠিয়েছেন। পরে দেখা গেলো প্রথমে ব্যাট করার সুযোগ পেয়ে তা পুরোপুরি লুফে নিয়েছে প্রোটিয়া দুই ওপেনার। শত রানের ওপেনিং জুটিই বড় স্কোরের মঞ্চ গড়ে দেয় দক্ষিণ আফ্রিকার। ১৯.৪ ওভারে দুই ওপেনার মিলে ১০৮ রান যোগ করেছেন। অধিনায়ক তেম্বা বাভুমাকে ৩৫ রানে ফিরিয়ে জুটি ভাঙেন ম্যাক্সওয়েল।

যদিও অপরপ্রান্তে থাকা কুইন্টন ডি কককে থামানো যায়নি। টানা দ্বিতীয় ম্যাচে সেঞ্চুরি তুলে নেন ঝড়ো ব্যাটিংয়ে। এই সময়ে রাসি ফন ডার ডুসেন সঙ্গ দেওয়ার চেষ্টা করলেও ২৬ রানে আউট হয়েছেন। তার পর চলে ডি কক শো। ১০৬ বলে ১০৯ রান করা এই ব্যাটারকে ফিরিয়েই রাশ টেনে ধরতে অবদান রাখেন ম্যাক্সওয়েল। ডি ককের ইনিংসে ছিল ৮টি চার ও ৫টি ছয়ের মার।

তার পর মারক্রাম চেষ্টা করেছেন ইনিংসটা টেনে নিয়ে যাওয়ার। কিন্তু দ্রুত গতিতে হাফসেঞ্চুরি তুলে নেওয়ার পর বেশি দূর যেতে পারেননি তিনি। মারক্রামকে ৪৪ বলে ৫৬ রানে থামিয়েছেন জশ হ্যাজেলউড। হাইনরিখ ক্লাসেনও ২৯ রানের বেশি করতে পারেননি। শেষ দিকে স্কোরটা তিনশ ছুঁয়েছে ডেডিভ মিলার ও মার্কো ইয়ানসেনের মিনি ঝড়ে। মিলার ১ চার ও ১ ছক্কায় ১৩ বলে ১৭ রান করেছেন। ইয়ানসেন ২২ বলে ৩ চার ও ১ ছক্কায় করেছেন ২৬।

অজিদের হয়ে ৩৪ রানে দুটি উইকেট নিয়েছেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। ৫৩ রানে দুটি নেন মিচেল স্টার্কও। একটি করে নিয়েছেন জশ হ্যাজেলউড, প্যাট কামিন্স ও অ্যাডাম জাম্পা।

পূর্বকোণ/এএইচ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট