চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২৮ মে, ২০২৪

সর্বশেষ:

এজবাস্টনে রোমাঞ্চকর জয় অস্ট্রেলিয়ার

স্পোর্টস ডেস্ক

২১ জুন, ২০২৩ | ১২:১৭ অপরাহ্ণ

টেস্ট ক্রিকেট মানে ধৈর্য্যের খেলা। যেখানে জড়িয়ে থাকে উথান-পতন। পেন্ডুলামের মত দুলতে থাকা ম্যাচটি নিয়ে অবশ্য শুরু থেকে অনিশ্চয়তা ছিল। প্রথম সেশন বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়ার পরও টেস্ট ক্রিকেট রোমাঞ্চ ছড়াল তার নানা রূপ দেখিয়ে। এক প্রান্তে মাটি কামড়ে পড়ে থেকে দলকে টানলেন উসমান খাওয়াজা। ম্যাচ একটু একটু করে হেলে পড়ল অস্ট্রেলিয়ার দিকে। খাওয়াজাকে ফিরিয়েই আশা জাগাল ইংল্যান্ড। কিন্তু পেরে উঠল না তারা শেষ পর্যন্ত। স্নায়ুর চাপ সামলে প্যাট কামিন্সের মহামূল্যবান এক ইনিংস ও ন্যাথান লায়নের সঙ্গে অসাধারণ নবম উইকেট জুটির নৈপুণ্যে রোমাঞ্চকর জয় পেল অস্ট্রেলিয়া।

 

অ্যাশেজ সিরিজের প্রথম টেস্টে ইংলিশদের ২ উইকেটে হারিয়ে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল অস্ট্রেলিয়া। ৩৯৩ রান করে প্রথম ইনিংস ঘোষণা করার পর ৩৮৬ রানে গুটিয়ে যায় অস্ট্রেলিয়া। দ্বিতীয় ইনিংসে ২৭৩ রান যোগ করে ২৮১ রানের লক্ষ্য দাঁড় করায় বেন স্টোকসের দল। জবাব দিতে নেমে শেষ দিনের ৫.৩ ওভার বাকি থাকতে লক্ষ্য ছুঁয়ে ফেলে অজিরা।

 

শেষদিনে ৩ উইকেট হারিয়ে ১০৭ রানে ব্যাট করতে নামে অস্ট্রেলিয়া। ১৩ রানে দিন শুরু করা স্কট বোল্যান্ড অবশ্য ২০ রান করেই হারান উইকেট। ট্রাভিস হেড নেমে হতে পারেননি সফল। তিনি বিদায় নেন ১৬ রান করে। এরপর ক্যামেরুন গ্রিন এসে জুটি গড়ার চেষ্টা করেন। ৩৪ রানে দিন শুরু করা উসমান ১৪৩ বলে পান ফিফটির দেখা। এরপর গ্রিন ২৮ রান যোগ করে বিদায় নেন।

 

লড়তে থাকা উসমান ৬৫ রানে বিদায় নিলে সব আশা যেন মাটিতে মিশে যায় অস্ট্রেলিয়ার। ১৯৭ বলে ৭ চারে তার এই ইনিংসই ছিল অজিদের হয়ে সর্বোচ্চ। এরপর অ্যালেক্স কেয়ারি এসে ২০ রান যোগ করে শিকার হন জো রুটের। বাকি সময়টা নিজেদের করে নেন কামিন্স ও লায়ন। ৫৫ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়ে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন তারা।

 

৭৩ বলে ৪টি চার ও ২টি ছক্কায় অপরাজিত ৪৪ রানের ইনিংস খেলেন অধিনায়ক কামিন্স। লায়ন খেলেন ২৮ বলে অপরাজিত ১৬ রানের ইনিংস।

পূর্বকোণ/পিআর

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট