চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ১৮ জুলাই, ২০২৪

সর্বশেষ:

কালও সারাদেশে ব্লকেড কর্মসূচি ঘোষণা

অনলাইন ডেস্ক

৭ জুলাই, ২০২৪ | ১০:৫৯ অপরাহ্ণ

সরকারি চাকরিতে কোটা বাতিলের দাবিতে সোমবারও সারা দেশে ‘বাংলা ব্লকেড’কর্মসূচি পালন করবে কোটাবিরোধী আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। আন্দোলনের সময় ক্লাস-পরীক্ষাও অনির্দিষ্টকালের জন্য বর্জনের ঘোষণা দিয়েছে তারা।

 

আজ রবিবার (৭ জুলাই) রাত পৌনে ৮টার দিকে এই ঘোষণা দেন আন্দোলনের সমন্বয়ক নাহিদ ইসলাম। তিনি জানান, আগামীকাল বেলা সাড়ে ৩টা থেকে ব্লকেড শুরু হবে।

 

এ সময় শিক্ষার্থীরা চার দফা বাদ দিয়ে এক দফা দাবি ঘোষণা করেন। তা হলো- সকল গ্রেডে অযৌক্তিক ও বৈষম্যমূলক কোটা বাতিল করে সংবিধানে উল্লেখিত অনগ্রসর গোষ্ঠীর জন্য কোটাকে ন্যুনতম পর্যায়ে এনে সংসদে আইন পাস করতে হবে।

 

নাহিদ ইসলাম বলেন, আমাদের পূর্বঘোষিত কর্মসূচির অনুযায়ী অনির্দিষ্টকালের জন্য বাংলা ব্লকেড কর্মসূচিও ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে ছাত্র ধর্মঘট চলবে। সারাদেশে আরও বৃহৎ বাংলা ব্লকেড চলতে থাকবে।

 

তিনি বলেন, আগামীকাল বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সামনে জড়ো হয়ে শাহবাগে ব্লকেড কর্মসূচি পালন করব। সারাদেশে সব স্থানে শিক্ষার্থীরা ব্লকেড পালন করবেন।

 

নাহিদ ইসলাম আরও বলেন, আমাদের দাবি মেনে নেন না হয় ১০০ পারসেন্ট কোটা দিয়ে দেন। ঘোষণা করে দেন— এটা কোটাধারীদের দেশ।

 

তিনি আরও বলেন, আমরা সংবিধান স্বীকৃত বিষয়ে কথা বলছি। সংবিধানে সমতার কথা বলা আছে। কোটা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের প্রসঙ্গ টেনে নাহিদ বলেন, আমাদের আদালত দেখিয়ে লাভ নেই। আমরা সংবিধান স্বীকৃত বিষয়ে আন্দোলন করছি।

 

আরেক সমন্বয়ক হাসনাত আবদুল্লাহ বলেন, আমাদের চার দফা দাবি ছিল। এখন থেকে আমাদের দাবি একটাই, সব গ্রেডে বৈষম্যমূলক ও অনায্য কোটা বাতিল করে যৌক্তিকভাবে সংস্কার করতে হবে।

 

কোটা বাতিলে চার দফা দাবি বাদ দিয়ে এক দফা দাবি ঘোষণা করে সমন্বয়ক হাসনাত আব্দুল্লাহ বলেন, আমরা সকল প্রকার নাতিপুতি কোটা-পৌষ্য কোটাকে অযৌক্তিক কোটা মনে করছি। আমাদের দাবি মেনে নেওয়া হোক। আজকেই আমরা পড়ার টেবিলে ফিরে যাব।

 

 

পূর্বকোণ/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট