চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ১৮ জুন, ২০২৪

সর্বশেষ:

প্রভুর মতো আচরণ করা বেনজীর এখন কোথায়, প্রশ্ন মির্জা ফখরুলের

অনলাইন ডেস্ক

২ জুন, ২০২৪ | ৭:৩৬ অপরাহ্ণ

‘বন্দুক দেওয়া হয়েছে গুলি করার জন্য–দায়িত্বে থাকা অবস্থায় বেনজীর দাম্ভিকতার সঙ্গে অধীনস্থদের এমন নির্দেশনা দিতেন। তার নির্দেশে অনেক মানুষকে হত্যা করা হয়েছে। একসময় প্রভুর মতো আচরণ করা সাবেক পুলিশপ্রধান বেনজীর এখন কোথায়? স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী যদি বেনজীরের হদিস না জানেন তাহলে কি এটাকে রাষ্ট্র বলা যায়?’

 

জিয়াউর রহমানের ৪৩তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশন (জেডআরএফ) আয়োজিত আলোচনা সভায় এই প্রশ্ন রেখেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। রবিবার (২ জুন) জাতীয় প্রেস ক্লাবের আব্দুস সালাম হলে এই সভা হয়।

 

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘সাধারণ মানুষকে যাদের রক্ষা করার কথা সেই সাবেক পুলিশপ্রধান ও সেনাপ্রধানের নামে লুটপাটের খবর বের হচ্ছে। শুধু তারাই না, সরকারের লোকেরা সর্বত্র লুটপাট চালাচ্ছে। আর সেই লুটের টাকা বিদেশে পাচার করে দিচ্ছে।’

 

‘সরকার ঋণ করে দেশ চালাচ্ছে, আর ভবিষ্যৎ প্রজন্মের ঘাড়ে সেই বোঝা চাপাচ্ছে’ বলেও মন্তব্য করেন ফখরুল। তিনি বলেন, ‘আমাদের এমন এমন সব প্রজেক্ট করছে, তার মধ্যে একটা হচ্ছে রূপপুর, যার ঋণ আমরা কখনও শোধ করতে পারবো না। ওর লোন আর ইন্টারেস্ট শোধ করতে করতেই আমরা শেষ হয়ে যাবো। সবচেয়ে বেশি ইন্টারেস্ট রেট সেখানে।’

 

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আজ সরকার নির্বাচন কমিশনটাকে শেষ করে দিয়েছে। শুধু নির্বাচন কমিশন না, ব্যবস্থাটাকেই শেষ করে দিয়েছে। মানুষ আজ ভোট দিতে চায় না। কতটা অনাস্থা আসতে পারে তা আজ প্রমাণ করছে বাংলাদেশের ভোট ব্যবস্থা। কোনও মানুষ ভোট দিতে চায় না, কারণ তারা জানে তাদের ভোট কাউন্টই হবে না।’

দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আমরা শুধু স্লোগান দিয়ে রাজনীতি করতে চাই। শুধু স্লোগানের রাজনীতি করলে হবে না, জেনে-শুনে রাজনীতি করতে হবে। আমি জামায়াতে ইসলামীর রাজনীতি সমর্থন করি না। কিন্তু জামায়াতে ইসলামীর রাজনীতির যে কৌশল-প্রক্রিয়া তা অত্যন্ত বিজ্ঞানসম্মত। তা অনেকটাই কমিউনিস্ট পার্টির মতো। তাদের যে ছাত্রশিবির আছে, তাদের লেখাপড়া করতে হয়। তারা নিজেরা বই প্রকাশ করে, পত্রিকা প্রকাশ করে। তার মানে জ্ঞানের চর্চা ছাড়া আপনি কখনও সফল হতে পারবেন না।’

 

‘বিএনপির ঘুরে দাঁড়ানোর সময়ের ব্যাপার মাত্র’­ উল্লেখ করে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আজ আমাদের দায়িত্ব হয়ে গেছে দেশকে, স্বাধীনতাকে, গণতন্ত্রকে রক্ষা করার। আমরা যদি এই বর্গী সরকারকে ঠেকাতে না পারি তাহলে আমাদের দেশের কোনও অস্তিত্ব থাকবে না।’

 

জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক ও বিএনপির ঢাকা মহানগর উত্তরের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক অধ্যাপক ডা. ফরহাদ হালিম ডোনারের সভাপতিত্বে এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ড. নূরুল আমিন বেপারী, সাংবাদিক নেতা কাদের গণি চৌধুরী প্রমুখ।

 

 

পূর্বকোণ/আরআর/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট