চট্টগ্রাম রবিবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২৪

ওবায়দুল কাদের স্মৃতিভ্রংশ রোগে ভুগছেন : রিজভী

অনলাইন ডেস্ক

৩ মার্চ, ২০২৪ | ৬:৩৯ অপরাহ্ণ

ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদক ও  সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ‘স্মৃতিভ্রংশ রোগে ভুগছেন’ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ।

 

রবিবার (৩ মার্চ) রাজধানীর নয়া পল্টনে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘‘সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন—‘জনগণ দ্বারা বারবার প্রত্যাখ্যাত হয়ে বিএনপি নেতারা তাদের বিদেশি প্রভুদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছে।’ ওবায়দুল কাদের সাহেব ডিমেন্সিয়াতে নয়, তিনি অ্যামেন্সিয়া বা স্মৃতিভ্রংশ রোগে ভুগছেন।’’

 

‘উনি সম্পূর্ণ ভুলে গেছেন— ২০১৪ সালে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভারতের সাবেক পররাষ্ট্র সচিব সুজাতা সিংয়ের ভূমিকার কথা, যা ছিল একটি দেশের অভ্যন্তরে সরাসরি হস্তক্ষেপের শামিল।’ বলেন রিজভী।

 

ব্যাখ্যা করে এই বিএনপি নেতা আরও বলেন, ‘কারণ তাদেরকে প্রভু মানে বলেই ওবায়দুল কাদের সাহেবরা ওই হস্তক্ষেপের সুযোগ দিয়েছিলেন এবং এখনও দিচ্ছেন। এ ঘটনা প্রমাণিত হয়— আওয়ামী লীগ প্রভুদের কাছে কতটুকু নতজানু। এটি দেশের সার্বভৌমত্ব বিকিয়ে দেওয়ার এক ভয়ানক দৃষ্টান্ত।’

 

রিজভী আহমেদ উল্লেখ করেন, ডামি নির্বাচনের আগে আওয়ামী প্রভুদের অসৎ তৎপরতায় আবারও প্রমাণিত হয়েছে— তারা বাংলাদেশের স্বাধীনতা এবং নাগরিকদের ভোটাধিকারকে থোড়াই কেয়ার করে।’
তিনি বলেন, ‘পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, বিএনপি নাকি ইসরায়েলের দোসর এবং গণহত্যার পক্ষে অবস্থান নিয়েছে। বরাবরই পররাষ্ট্রমন্ত্রীর কথাবার্তা আদিযুগের গল্পের মতো। ওবায়দুল কাদের সাহেব টাটকা মিথ্যা কথা বলেন। আর হাছান মাহমুদ সাহেব বাসী-মিথ্যা কথা বলেন।’

 

রুহুল কবির রিজভী দাবি করেন, সারা দেশের মানুষ জানে— গণতন্ত্রকামী বাংলাদেশের বিরোধী দল নিধনের জন্য ইসরায়েল থেকে স্পাইওয়্যার কেনা হয়েছে— যা দিয়ে মোবাইল ফোনে আড়িপাতা সম্ভব।’

 

তার মন্তব্য, ‘আওয়ামী লীগের ক্ষমতালাভের আগে-পরে এরা কখনোই ন্যায়নীতির নির্দেশ গ্রাহ্য করেনি। এরা মুখে যা বলে, করে তার বিপরীত। হঠাৎ হাছান মাহমুদ সাহেব এ ধরনের কথা বলা শুরু করলেন কেন? মনে হচ্ছে, ডামি সরকার নিজের ছায়া দেখে ভয় পাচ্ছে এবং তলে তলে বিপদ আঁচ করতে পারছে।’

 

 

 

পূর্বকোণ/আরআর/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট