চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২৪

ফাইল ছবি

টাঙ্গাইল শাড়ি আমাদের, এটা অন্য কেউ নিতে পারবে না: প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ | ৯:১৩ অপরাহ্ণ

টাঙ্গাইল শাড়ি নিয়ে বিতর্কের অবসান ঘটাতে প্রধানমন্ত্রী বলেন, টাঙ্গাইল শাড়ি আমাদের, এটা অন্য কেউ নিতে পারবে না।প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন. এই পণ্য যে আমাদের- সেটি বোঝানোর জন্য তিনি নিজে এই কাপড় টানা কয়েক দিন পরেছেন।

 

আজ শুক্রবার (২৪ ফেব্রয়ারি) গণভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এটা যে আমাদের, সেটা দেখানোর জন্য আমি কয়েকদিন একটানা শুধু টাঙ্গাইলই পরলাম। কারণ এটা আমাদের, কাজেই অন্য কেউ নিতে পারবে না।

 

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে শেখ হাসিনা জানান, তার পরনের শাড়িটি ফ্রেঞ্চ শিফন নয় (খালেদা জিয়ার বহুল ব্যবহৃত দামি শাড়ি) শফিপুর আনসার একাডেমি থেকে কেনা একটি তাঁতের শাড়ি। এটিকে তিনি শফিপুর শিফন বলে পরিচয় করিয়ে দেন।

 

তিনি বলেন, এটা বুঝতে হবে যে আমি এদেশের মাটি ও মানুষের সঙ্গে আছি। টাঙ্গাইলের তাঁতের শাড়িও আমি ব্যবহার করি এবং এর পেটেন্ট রাইটসের জন্য আবেদন করা হয়েছে।

 

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি ‘বাংলার টাঙ্গাইল শাড়ি’ বা ‘টাঙ্গাইল শাড়ি অব বেঙ্গল’ নামে একটি শাড়িকে জিআই স্বীকৃতি দেয় ভারতের শিল্প মন্ত্রণালয়। এর পরেই বিতর্কের জন্ম শুরু। টাঙ্গাইল বাংলাদেশের এলাকা, টাঙ্গাইল শাড়ি বাংলাদেশের নিজস্ব পণ্য হওয়ার পরও ভারত কিভাবে তা নিজেদের পণ্য হিসেবে জিআই স্বীকৃতি পায়, সেই প্রশ্ন ওঠে।

 

এরপর বাংলাদেশ সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলো এই শাড়ির জিআই স্বীকৃতির জন্য উদ্যোগী হয়। টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসন ৬ ফেব্রুয়ারি টাঙ্গাইল শাড়ির জিআই স্বীকৃতির আবেদন করে। পরে পেটেন্ট, ডিজাইন ও ট্রেডমার্কস অধিদপ্তর তা অনুমোদন করে গেজেট প্রকাশ করে। পরে শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন ও সচিব জাকিয়া সুলতানা ১১ ফেব্রুয়ারি টাঙ্গাইল শাড়ি, নরসিংদীর অমৃত সাগর কলা ও গোপালগঞ্জের রসগোল্লার জিআই পণ্য হিসেবে স্বীকৃতির সনদ প্রধানমন্ত্রীর কাছে হস্তান্তর করেন।

 

 

পূর্বকোণ/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট