চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪

সর্বশেষ:

অর্থপাচারকারীদের তালিকা প্রকাশের দাবি

অনলাইন ডেস্ক

১২ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ | ১০:২৪ অপরাহ্ণ

ব্যাংক ঋণ নিয়ে দেশের বাইরে অর্থপাচারকারীদের তালিকা সংসদে প্রকাশের দাবি জানিয়েছেন স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য আবদুল কাদের আজাদ (এ কে আজাদ)। দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অবস্থান উদ্ধৃত করে তিনি বলেন, সবার আগে ব্যাংক খাতে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

 

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) সংসদের বৈঠকে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপরে আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এসব কথা বলেন। এর আগে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের বৈঠক শুরু হয়। ব্যাংক খাতের সংস্কারে বাংলাদেশ ব্যাংকের রেডম্যাপকে স্বাগত জানিয়ে এ কে আজাদ বলেন, বাংলাদেশে এখন খেলাপি ঋণের পরিমাণ ১ লাখ ৪৫ হাজার ৬৩৩ কোটি টাকা। প্রকৃতপক্ষে এটা আরও বেশি। কিন্তু অবলোপনের মাধ্যমে ঋণের পরিমাণ কমিয়ে দেখানো হয়। যারা ঋণ নিয়ে কলকারখানায় বিনিয়োগ করে ফেরত দিতে ব্যর্থ হয়েছেন, তদন্ত সাপেক্ষে তাদের ছাড় দেওয়া যেতে পারে। কিন্তু যারা ঋণ নিয়ে কোনও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে বিনিয়োগ করেননি, পাচার করেছেন, বিদেশে বেগমপাড়া-সেকেন্ড হোম বানিয়েছেন, তদন্তের মাধ্যমে তাদের বিচারের আওতায় আনা এবং সংসদে তাদের তালিকা প্রকাশের দাবি জানাই।

 

স্বতন্ত্র এই এমপি বলেন, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি ও মূল্যস্ফীতির জন্য যারা ব্যাংক লুট করেছে তারা দায়ী। একক কোনও প্রতিষ্ঠান দায়ী নয়। এদের আইনের আওতায় আনা না গেলে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়ন হবে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

 

এ কে আজাদ বলেন, বিবিএসের ২০২২ সালের প্রতিবেদন মতে, দেশের প্রায় ৪১ শতাংশ তরুণ নিষ্ক্রিয়। তারা পড়াশোনায় নেই, কর্মসংস্থানেও নেই। এমনকি কোনও কাজের প্রশিক্ষণও নিচ্ছে না। ১৫ থেকে ২৪ বছর বয়সসীমার এই নিষ্ক্রিয় তরুণের সংখ্যা প্রায় ১ কোটি ২৯ লাখ। অন্যদিকে গত ৩১ ডিসেম্বর ২০২৩ পর্যন্ত দেশে কর্মরত বিদেশি নাগরিকের সংখ্যা ছিল ১ লাখ ৭ হাজার ১৬৭ জন। মানবসম্পদকে উপযুক্ত করে প্রশিক্ষিত করতে পারলে যেমন কর্মসংস্থান বাড়বে, তেমনি দেশ থেকে রেমিট্যান্স চলে যাওয়াও ঠেকানো যাবে। এই সংসদের মাধ্যমে দেশবাসীর কাছে, ভোটারদের কাছে জবাবদিহি করতে চান জানিয়ে এ কে আজাদ বলেন, গঠনমূলক সমালোচনার মাধ্যমে সংসদকে কার্যকর ও প্রাণবন্ত করা যায়। এ ব্যাপারে তিনি স্পিকারের সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন।

 

 

পূর্বকোণ/আরআর/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট