চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ১৮ জুন, ২০২৪

সর্বশেষ:

ট্রেনের ৩ বগিতে আগুন, আহত ১০

অনলাইন ডেস্ক

১৯ নভেম্বর, ২০২৩ | ১২:১২ অপরাহ্ণ

জামালপুরের সরিষাবাড়ী রেলওয়ে স্টেশনে যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের তিনটি বগিতে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এ সময় ট্রেন থেকে লাফিয়ে নামতে গিয়ে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে চারজন নারী যাত্রীকে সরিষাবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

শনিবার দিবাগত রাত ১টা ১০ মিনিটে ট্রেনটিতে আগুন দেওয়া হয়।

আহত নারীরা হলেন- সরিষাবাড়ীর রুদ্র বয়ড়া এলাকার আমিনুল ইসলামের মেয়ে আশিকা সুলতানা, তারাকান্দি এলাকার জহির উদ্দিনের স্ত্রী মমতাজ , ইয়ার মাহমুদের স্ত্রী জেলি বেগম, সোহেল রানার স্ত্রী লাবনী আক্তার। অনান্যদের নাম পরিচয় এখনও জানা যায়নি।

জামালপুর রেল পুলিশের এসআই মো. নাজির জানান, ঢাকা থেকে তারাকান্দিগামী আন্তঃনগর যমুনা সরিষাবাড়ী রেল স্টেশন থেকে ছাড়ার পরই পেছনে একটি বগিতে আগুন দেখতে পান যাত্রীরা। দ্রুত ট্রেনটি থামানো হলেও তিনটি বগি আগুনে পুড়ে গেছে। খবর পেয়ে সরিষাবাড়ী ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।

সরিষাবাড়ী রেল স্টেশনের সহকারী স্টেশন মাস্টার আব্দুস সালাম বলেন, লাইন ক্লিয়ার দেওয়ার পরে ট্রেনটি তারাকান্দির দিকে যাওয়ার সময় মানুষের চিল্লাচিল্লি শুনে গিয়ে দেখতে পাই ট্রেনের ক এবং গ ও আরেকটি আংশিক বগিতে আগুন জ্বলছে।

যমুনা আন্তঃনগর ট্রেনের পরিচালক মাসুদ মিয়া জানান, শনিবার বিকেলে ১৪টি বগি নিয়ে ঢাকা থেকে তারাকান্দির উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসে ট্রেনটি। রাত ৯টা ৫ মিনিটে সরিষাবাড়ী স্টেশনে পৌঁছে। তিন মিনিটের বিরতি শেষে তারাকান্দির উদ্দেশ্য ছাড়ার পরই ট্রেনের ভেতরে ধোয়া দেখে স্টেশনে যাত্রীরা চিল্লাতে থাকে। পরে পরিচালক ট্রেনটি থামান। দুটি বগি পুরোপুরি ও একটি আংশিক পুড়ে গেছে।

সরিষাবাড়ী ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার রুহুল আমীন জানান, রাত ১টা ২০ মিনিটে তিনি খবর পান দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাদের টিম আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।

পূর্বকোণ/এএইচ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট