চট্টগ্রাম শুক্রবার, ১৯ জুলাই, ২০২৪

সর্বশেষ:

ইউনিলিভার বাংলাদেশ’র নতুন চেয়ারম্যান জাভেদ আখতার

বিজ্ঞপ্তি

৩১ আগস্ট, ২০২৩ | ৯:৪০ অপরাহ্ণ

ইউনিলিভার বাংলাদেশ লিমিটেড (ইউবিএল) জাভেদ আখতারকে ২০২৩ সালের ২৮ আগস্ট থেকে সর্বসম্মতিক্রমে পরিচালনা পর্ষদের নতুন চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে। গত ২৭ আগস্ট আয়োজিত পরিচালনা পর্ষদের ১৯৪ তম সভায় এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। কোম্পানির বর্তমান সিইও এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) জাভেদ কেদার লেলে’র স্থলাভিষিক্ত হচ্ছেন, যিনি ২০২০ সাল থেকে এ দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। এই ছয় দশক ধরে চলে আসা কোম্পানিটির নতুন চেয়ারম্যানের ভূমিকার পাশাপাশি ইউনিলিভার বাংলাদেশের ব্যবসার নেতৃত্ব দিতে জাভেদ ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দায়িত্বও পালন করবেন। একইসাথে তিনি ইউনিলিভার সাউথ এশিয়া লিডারশিপ টিমের সদস্য হিসেবেও থাকবেন। এই উপলক্ষে হিন্দুস্তান ইউনিলিভার লিমিটেডের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) এবং ইউনিলিভার সাউথ এশিয়ার প্রেসিডেন্ট রোহিত জাওয়া বলেন, আমাদের ভোক্তাদের জন্য সেরা ব্র্যান্ডের মাধ্যমে ব্যবসায়িক ফলাফলকে শক্তিশালী করার জন্য জাভেদের প্রচেষ্টা এবং একই সাথে, ইউনিলিভারের সামাজিক ও পরিবেশ উন্নয়ন সংক্রান্ত প্রতিশ্রুতিগুলো বাস্তবায়নে কাজ করা সত্যিই প্রশংসনীয়। ইউনিলিভার বাংলাদেশের নতুন চেয়ারম্যান হিসেবে জাভেদকে ইউনিলিভার দক্ষিণ এশিয়া লিডারশিপ টিমে স্বাগত জানাতে পেরে আমি আনন্দিত। আমি আত্মবিশ্বাসী যে তার নেতৃত্বে ইউনিলিভার বাংলাদেশ আরও শক্তিশালী হয়ে উঠবে এবং বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধির যাত্রায় অংশীদারিত্ব অব্যাহত রাখবে। জাভেদ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউট (আইবিএ) থেকে স্নাতক ডিগ্রি সম্পন্ন করেছেন। এ ছাড়াও তিনি ভারতের আইআইএম আহমেদাবাদ এবং সিঙ্গাপুরের আইএনএসইএডি থেকে প্রশিক্ষণ লাভ করেছেন। জাভেদ আখতার ২০০০ সালে ইউনিলিভার বাংলাদেশ এ যোগদান করেন, এরপর তিনি দুই দশকেরও দীর্ঘ পেশাগত জীবনে দেশীয়, আঞ্চলিক এবং আন্তর্জাতিক পরিসরে প্রশংসনীয় ব্যবসায়িক দক্ষতা, কনজ্যুমার সেন্ট্রিসিটি ও নেতৃত্বের নজির স্থাপনের মাধ্যমে বিভিন্ন ভূমিকা পালন করে এসেছেন। সফল বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক কার্যক্রমের পর জাভেদকে ২০২১ সালে ইউনিলিভার বাংলাদেশ এর সিইও এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়।একজন ‘ক্যারিয়ার মার্কেটার’ হিসেবে জাভেদ আখতার বহু উদ্ভাবন, যোগাযোগ ও সক্ষমতা বিষয়ক প্রোগ্রামে কাজ করেছেন যা তাকে এনে দিয়েছে বৈশ্বিক স্বীকৃতি। তিনি বিভিন্ন ‘চেঞ্জ ম্যানেজমেন্ট প্রোগ্রাম’ও পরিচালনা করেছেন যেখানে তিনি যুগান্তকারী প্রযুক্তি এবং ডিজিটাইজেশনের মাধ্যমে ব্যবসা খাতকে নতুন রূপ দিয়েছেন। ইউনিলিভার এর উদ্দেশ্য-চালিত ব্যবসায়িক কৌশলের মাধ্যমে সেরা ‘বিজনেস পারফরম্যান্স’ উপহার দেয়ার তার এই অভিযানে তিনি ইউনিলিভার বাংলাদেশ এর প্রবৃদ্ধির যাত্রাকে ধারাবাহিকভাবে এগিয়ে নিয়ে যান।-বিজ্ঞপ্তি

পূর্বকোণ/এএইচ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট