চট্টগ্রাম সোমবার, ২৪ জুন, ২০২৪

তেলাপোকা মারার ওষুধে দুই ভাইয়ের মৃত্যু: স্প্রে ম্যান কারাগারে

অনলাইন ডেস্ক

৯ জুন, ২০২৩ | ৮:১৩ অপরাহ্ণ

ঢাকার বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় এক ব্যবসায়ীর বাড়িতে দেওয়া ‘তেলাপোকা মারার ওষুধের’ বিষক্রিয়ায় দুই সন্তানের মৃত্যুর মামলায় স্প্রে ম্যানকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। দুই দিনের রিমান্ড শেষে আজ শুক্রবার (৯ জুন) স্প্রে ম্যান টিটু মোল্লাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

 

মামলার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাকে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন তদন্ত কর্মকর্তা ভাটারা থানার উপ-পরিদর্শক রফিকুল ইসলাম। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আরফাতুল রাকিব তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

 

এর আগে গ্রেপ্তারের পর গত ৬ জুন টিটু মোল্লার দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

 

এ মামলায় পেস্ট কন্ট্রোল সার্ভিস প্রতিষ্ঠান ডিসিএস অর্গানাইজেশন লিমিটেডের চেয়ারম্যান আশরাফুজ্জামান এবং এমডি ফরহাদুল আমীন রিমান্ডে রয়েছেন। বৃহস্পতিবার ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মাহবুব আহমেদ তাদের তিন দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

 

‘তেলাপোকা মারার ওষুধের’ বিষক্রিয়ায় ব্যবসায়ী মোবারক হোসেন তুষারের দুই ছেলে শাহিল মোবারত জায়ান (৯) ও শায়েন মোবারত জাহিনের (১৫) মৃত্যু হয়। মোবারক হোসেন ঢাকা রয়েল ক্লাব লিমিটেডের (উত্তরা) প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি। পরিবার নিয়ে তিনি বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় থাকতেন। এ ঘটনায় তিনি ভাটারা থানায় মামলা করেন।

 

পুলিশ জানায়, পোকামাকড় মারতে মোবারক হোসেন নিজের বাসায় ওষুধ প্রয়োগে ‘ডিসিএস অর্গানাইজেন লিমিটেড’ নামে ওই কোম্পানিকে দায়িত্ব দিয়েছিলেন। সেই পেস্ট কন্ট্রোল কোম্পানির কর্মীরা পোকামাকড় নিধনের জন্য অ্যালুমিনিয়াম ফসফাইড ট্যাবলেট (গ্যাস ট্যাবলেট) ব্যবহার করেছিলেন। ওষুধ দেওয়ার ৬ ঘণ্টার মধ্যে ঘরে ঢুকতে নিষেধ করা হয়। কোম্পানির নির্দেশনা মেনে ১৫ ঘণ্টা পর পরিবারের সদস্যরা ঘরে প্রবেশ করেন। এরপরেই বিষাক্ত গ্যাসের বিক্রিয়ার শিকার হতে শুরু করেন তারা।

 

পূর্বকোণ/জেইউ/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট