চট্টগ্রাম বুধবার, ১৭ এপ্রিল, ২০২৪

সর্বশেষ:

ডা. সারওয়ার কামাল

বিশ^মানের চিকিৎসা পেলে মানুষ কেন বিদেশ যাবে ?

২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ | ৫:২৬ পূর্বাহ্ণ

জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের সাবেক সার্জন ও দিনাজপুর জিয়া হার্ট ফাউন্ডেশনের সাবেক চিফ কার্ডিয়াক সার্জন ডা. সারওয়ার কামাল পূর্বকোণকে বলেন, বাংলাদেশের মধ্যে হৃদরোগে আক্রান্ত সবচেয়ে বেশি রোগী চট্টগ্রামে। এর কারণ হলো চট্টগ্রামের মানুষের খাদ্য অভ্যাস। একই সাথে চট্টগ্রামের তিন পার্বত্য এলাকায় জেনেটিক কারণে শিশুরা হৃদরোগে আক্রান্ত হয়। বন্দর নগরীতে হার্টের রোগীর তুলনায় সরকারি চিকিৎসা সেবা কিছুটা কম। এই কারণে নি¤œবিত্ত ও মধ্যবিত্ত শ্রেণীর রোগীরা পরিপূর্ণ চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। কেননা হার্টেও পরিপূর্ণ চিকিৎসাটা ব্যায়বহুল। চট্টগ্রামে বেসরকারিভাবে পরিপূর্ণ চিকিৎসার ব্যবস্থা থাকলে ব্যায়বহুলতার কারণে অনেকে চিকিৎসা নিতে পারেনা। ঢাকা জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হার্ট ফাউন্ডেশন থাকলে চট্টগ্রামে মেডিকেল কলেজ ছাড়া আর কোথাও সরকারি সেবায় হার্টের বাইপাস সার্জারি বা রিং লাগানোর ব্যবস্থা নেই। সরকারি সুযোগ সুবিধা সম্বলিত হৃদরোগের জন্য হাসপাতাল তৈরি হলে বৃহত্তর চট্টগ্রামসহ পুরো বিভাগে আক্রান্ত রোগীরা স্বল্প খরচে হর্টের পরিপূর্ণ চিকিৎসা পাবে।
ডা. সারওয়ার কামালের সাফ কথা সরকারি সুযোগ সম্বলিত বিশ্বমানের হৃদরোগের চিকিৎসা যদি চট্টগ্রামে পাওয়া যায় তাহলে কেন মানুষ বিদেশে উড়াল দেবে? বর্তমানে আমরা চট্টগ্রামে উন্নত চিকিৎসা দিতে সক্ষম। আমরা চট্টগ্রামে কার্ডিয়াক সার্জারি নিয়মিত করছি। আমাদের সফলতাও শতভাগ। বিদেশে গিয়ে অর্থের অপচয়ের কোন যৌক্তিকতা নেই। তাঁর মতে বিদেশে যারা চিকিৎসা করাতে যান দেশে এসে তারা নানা জটিলতার সম্মুখীন হোন। অনেক রোগী আছেন যারা বিদেশে চিকিৎসা নিয়ে দেশে এসে চেকআপ করেন। সময়ত মতো বিদেশ যেতে না পারলে তাদের হার্টে অনেক জটিল রোগ দেখা দেয়। অনেকে সেলাইয়ে ইনফেকশনসহ ক্ষতস্থান থেকে পুঁজ বের করা হয়। তাই চট্টগ্রাম অঞ্চলের মানুষের জন্য সুবিধা সম্বলিত হৃদরোগের বিশেষায়িত হাসপাতাল স্থাপন জরুরি।

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট