চট্টগ্রাম শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪

সর্বশেষ:

বাংলাদেশের নির্বাচন গণতান্ত্রিক হয়নি: যুক্তরাজ্য

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

৯ জানুয়ারি, ২০২৪ | ১২:২৯ অপরাহ্ণ

বাংলাদেশের দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের মানদণ্ড অনুযায়ী হয়নি বলে অভিমত দিয়েছে যুক্তরাজ্য। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সোমবার (৮ জানুয়ারি) এক বিবৃতিতে এ কথা বলেছে। তবে বাংলাদেশের সঙ্গে দীর্ঘ সুসম্পর্কের বিষয়টি উল্লেখ করে, সব ধরনের সহযোহিতা চালিয়ে যাওয়ার কথা বলা হয়েছে বিবৃতিতে।

 

বাংলাদেশের নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর সোমবার দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়, গণতান্ত্রিক নির্বাচন নির্ভর করে বিশ্বাসযোগ্যতা, অবাধ ও সুষ্ঠু প্রতিযোগিতার ওপর। মানবাধিকারের প্রতি শ্রদ্ধা, আইনের শাসন এবং যথাযথ প্রক্রিয়া গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার অপরিহার্য উপাদান। নির্বাচনের সময় এই মানদণ্ডগুলো ধারাবাহিকভাবে মানা হয়নি। ভোটের আগে বিরোধী দলের উল্লেখযোগ্য সংখ্যক সদস্যকে গ্রেপ্তারে আমরা উদ্বিগ্ন।

 

ভোটের আগে এবং প্রচারের সময় সংঘটিত সহিংস ঘটনার নিন্দাও জানিয়েছে যুক্তরাজ্য।

 

নির্বাচনী প্রচারের আগে এবং প্রচার চলাকালে যেভাবে সহিংসতা এবং আতঙ্ক ছড়ানো হয়েছে, আমরা তার নিন্দা জানাই। রাজনীতিতে এ ধরনের কর্মকাণ্ডের কোনো স্থান নেই।

 

বিএনপি ও সমমনা এবং বামপন্থি দলের একাংশের বর্জনের এ নির্বাচনে ২২২ আসনে আওয়ামী লীগের জয়ের বিপরীতে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৬২ আসনে জয় পেয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থীরা।

 

গত দুই সংসদে প্রধান বিরোধী দলের আসনে বসা জাতীয় পার্টি শেষ পর্যন্ত ১১ আসনে জয় পেয়েছে।

 

আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪ দলের শরিকদের মধ্যে জাসদ একটি, ওয়ার্কার্স পার্টি একটি এবং এক সময় বিএনপির জোটে থাকা কল্যাণ পার্টি একটি আসনে জয় পেয়েছে।

 

একটি কেন্দ্র স্থগিত থাকায় ময়মনসিংহ-৩ (গৌরীপুর) আসনের ফল স্থগিত রেখেছে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়। সেই আসনেও আওয়ামী লীগের প্রার্থী এগিয়ে আছেন।

 

নির্বাচনে সব দলের অংশ না নেওয়ার বিষয়টিও উঠে আসে যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিষয়টি।

 

এতে বলা হয়, নির্বাচনে সব দল অংশ না নেওয়ায় বাংলাদেশের জনগণের ভোট দেওয়ার সুযোগ কাজে লাগানোর সুযোগ ছিল না।

 

যুক্তরাজ্য ও বাংলাদেশের মধ্যে গভীর ও ঐতিহাসিক বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের বিষয়টি তুলে ধরে বিবৃতিতে বলা হয়, একটি টেকসই রাজনৈতিক স্থিতিশীল অবস্থা এবং প্রাণবন্ত নাগরিক সমাজ দীর্ঘমেয়াদ অগ্রগতি এনে দিতে সক্ষম। আমরা সব রাজনৈতিক দলগুলোকে নিজেদের মতপার্থক্য দূর করে বাংলাদেশের জনগণের স্বার্থে অগ্রগতির একটি পথ খুঁজে বের করতে উৎসাহ দিই। আমরা এই প্রক্রিয়ায় সহযোগিতা দিয়ে যাব।

পূর্বকোণ/পিআর

শেয়ার করুন